টেস্ট থেকে মাহমুদউল্লাহর অবসর!

ডেস্ক নিউজ:
অফ ফর্মের কারণে টেস্ট ফরম্যাট থেকে বাদ পড়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। অবশেষে ১৬ মাস পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট খেলার সুযোগ হয় তার। সেই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে দারুণ এক ইনিংস খেলেন। এরপরই আবার শুরু হয় তার অবসরের গুঞ্জন। সেই গুঞ্জনটাই হয়তো সত্যি হলো! হারারে টেস্টের শেষ দিনে ধারাভাষ্য বক্স থেকে জানানো হয়, টেস্ট থেকে অবসর নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ।

আনুষ্ঠানিক ঘোষণা যদিও আসেনি। মাহমুদউল্লাহ কিংবা বিসিবি কেউই কিছু জানায়নি, তবে মাঠের দৃশ্য বুঝিয়ে দিয়েছে টেস্ট ক্রিকেট আর খেলছেন না মাহমুদউল্লাহ। হারারে টেস্টের পঞ্চম দিনে মাঠে নামার আগে মাহমুদউল্লাহকে ‘গার্ড অব অনার’ দেন সতীর্থরা। আর তাতেই স্পষ্ট হয়ে ওঠে আজই টেস্ট ক্রিকেট শেষ দিন মাহমুদউল্লাহর!

লম্বা বিরতি শেষে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে ফিরেই নিজেকে চিনিয়েছেন এই অলরাউন্ডার। খেলেছেন ১৫০ রানের অপরাজিত ইনিংস। কিন্তু এমন ইনিংস খেলার পরদিনই অভিমানে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিতে চেয়েছিলেন এই অলরাউন্ডার। পরে বিসিবির মধ্যস্থতায় শেষ পর্যন্ত আর ঘোষণা দেননি তিনি।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর গুঞ্জন ওঠে, টেস্ট থেকে বাদ পড়ছেন মাহমুদউল্লাহ। সেই গুঞ্জন সত্যিও হয় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঠিক তার পরের একমাত্র টেস্টে বাদ পড়ে। এমনকি গত বছরের মার্চে বিসিবি ঘোষিত কেন্দ্রীয় টেস্ট চুক্তিতে ছিলেন না মাহমুদউল্লাহ। স্বাভাবিক ভাবেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লাল বলে উপেক্ষিত ছিলেন তিনি।

রবিবার হারারে টেস্টের পঞ্চম দিন সকালে সতীর্থরা তাকে ‘গার্ড অব অনার’ দিয়েছেন। ড্রেসিং রুম থেকে মাঠে প্রবেশের পথে তামিম, সাকিব, মুমিনুল, লিটনরা দুই পাশে দাঁড়িয়ে তাকে সম্মান জানান। মাহমুদউল্লাহ হাসিমুখে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ওই সময় ধারাভাষ্য বক্সে ছিলেন শামীম আশরাফ চৌধুরী। তিনি বলেছেন, ‘আজ সকালে এই ভদ্রলোক… মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাংলাদেশ স্কোয়াডের সিনিয়র ক্রিকেটার প্রথম ইনিংসে ১৫০ রান করেছিলেন। তবে তিনি প্রত্যেককে জানিয়েছেন, টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিচ্ছেন। এজন্য সতীর্থরা তাকে গার্ড অব অনার দিয়েছে। এই টেস্টের পর বাংলাদেশ দীর্ঘদিন টেস্ট ম্যাচ খেলবে না। তার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে সতীর্থরা গার্ড অব অনার দিয়েছে।’

মন্তব্য করুন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্র রিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য বা বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বা বক্তব্য সংশোধনের ক্ষমতা রাখেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.