ঝিনাইদহে এবার আদম ব্যাপারীর গ্যাড়াকলে ২ মাস ধরে মা ও ছেলে নিখোঁজ

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ

ঝিনাইদহ মহেশপুরে এক আদম ব্যাপারীর খপ্পরে পড়ে ২মাস যাবৎ মা ও ৩বছরের শিশু নিখোঁজ রয়েছে। উপজেলা বিশ্বনাথপুর গ্রামের জহর আলীর পালিত কন্যা সালমা খাতুন (২০) ও তার ৩ বছরের শিশু পুত্র তানজিমকে এলাকার আদম ব্যবসায়ী পুড়াপাড়া বাজারের ষ্টুডিও মালিক জালাল উদ্দীন  বিদেশে নিয়ে যাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ২ মাস পূর্বে নিয়ে যায়।

 

নিখোঁজের মা কল্পনা বেগম জানান, ২মাস আগে শ্যামনগর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের পুত্র জালাল উদ্দীন আমার মেয়েকে বিদেশ নিয়ে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকায় নিয়ে যায়। ৩বছরে শিশু পুত্র তানজিমও সালমার সাথে ছিল। ঢাকায় যাওয়ার আগে আদম ব্যাপারী জালাল ও তার আত্মীয়দের চাপের মুখে একটি গরং বিক্রি করে মেয়ে বিদেশ যাওয়ার ৩৫ হাজার টাকা দেওয়া হয়।  এরপর আমার মেয়ে ০১৭৯০১৩৯৯৯৭ মোবাইল নম্বর থেকে একবার কথা বলে।

 

তারপর থেকে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া গেছে। আমি গরিব মানুষ হওয়ায় আইনের আশ্রয় নিতে পারিনি। কেউ আমাকে কোন প্রকার সহযোগীতাও করেনি। বাড়িতে বসে কান্না ছাড়া আমার আর কোন পুজি নেই। আমি আমার কন্যা ও নাতীকে ফেরৎ পেতে চায় এবং যে আদম ব্যাপারী তাদেরকে নিয়ে গেছে তার দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি করছি।

 

নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক এক ব্যাক্তি জানান যে,উক্ত আদম ব্যাপারী ভিভিন্ন এলাকার প্রায় ৭০ জনকে বিদেশে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করেছে। সালমা খাতুনকে সে বিদেশে নিয়ে যাওয়ার নাম করে প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে ঢাকায় নিয়ে যায়। তার পর থেকে সালমা ও তার শিশু পুত্রের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। এদিকে আদম ব্যাপারী জালাল গা ঢাঁকা দিয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আবদুল কাদের জানান বিষয়টি শুনেছি, তবে ভিকটিমের পরিবারের কেও আমাকে কিছু বলেনি।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.