চুক্তিতে সই না করেই ইংল্যান্ড সফরে যাচ্ছেন লঙ্কানরা

ডেস্ক নিউজ:
বেশ কিছুদিন ধরে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে দেশটির সিনিয়র ক্রিকেটারদের সম্পর্কের টানাপোড়ন চলছে। এর জন্য শঙ্কা তৈরি হয়েছিল ইংল্যান্ড সফর নিয়ে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ড সফরে যেতে রাজি হয়েছেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা। তবে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে সই করেননি তাঁরা। চুক্তিতে সই না করেই ইংল্যান্ড সফরে উড়াল দেবেন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দল।

ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোর খবর অনুযায়ী, আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ইংল্যান্ডের উদ্দেশে উড়াল দেবেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা। সফরে লঙ্কানদের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবেন অতিথিরা।

কয়েকমাস ধরেই কেন্দ্রীয় চুক্তি নিয়ে বোর্ডের সঙ্গে লঙ্কান ক্রিকেটারদের সমস্যা চলছিল। কেন্দ্রীয় চুক্তির ব্যাপারে বোর্ডের স্বচ্ছতা জানতে চেয়েছিলেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা। মূলত কিসের ভিত্তিতে এবারের চুক্তির তালিকা করা হয়েছে সে ব্যাপারে স্পষ্ট জানতে চেয়েছেন তাঁরা। বোর্ডও অবশেষে সব ক্রিকেটারদের সে বিষয়ে ব্যাখ্যা দেওয়া ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তাই ইংল্যান্ড সফরে যেতে রাজি হয়েছেন তাঁরা।

ক্রিকেটারদের আইনজীবি নিশান প্রেমাথিরত্নে ক্রিকেট ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোকে বলেন, ‘শুরু থেকেই ক্রিকেটাররা এই স্বচ্ছতা দাবি করে আসছিলেন। চুক্তিতে স্বাক্ষর না করেই এই সফরে খেলবেন তারা। কিন্তু খেলোয়াড়দের কাছে এ পরিস্থিতি সামলানোর অনুরোধ করা হয়েছিল। তারা সেই অনুরোধ রাখছে। ঐচ্ছিক এক ঘোষণপত্রে তারা এখন সই করেছেন, কিন্তু সেখানে পারিশ্রমিক নিয়ে কিছু উল্লেখ নেই। তারা সবসময়ই শ্রীলঙ্কার হয়ে খেলতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড সম্প্রতি নতুন বেতন স্কেল ঘোষণা করেছে। যাতে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের বেতন কমানো হয়। তাতে অনেক ক্রিকেটারই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তাই কেন্দ্রীয় চুক্তিতে সই করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন তাঁরা।

প্রস্তাবিত বেতন কাঠামো অনুযায়ী সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস ও বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। এর মধ্যে ম্যাথুসের বার্ষিক বেতন ১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার থেকে কমিয়ে ৮০ হাজার ডলার করা হয়েছে। আর করুনারত্নের বেতন ৭০ হাজার ডলার থেকে কমিয়ে মাত্র ৩০ হাজার ডলার করা হয়। এ ছাড়া নতুন যে বেতন কাঠামো প্রকাশ করা হয়, খেলোয়াড়রা এটিকে অস্বচ্ছ দাবি করেন। তাঁরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হন সে অনুরোধও করেছিলেন।

মন্তব্য করুন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্র রিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য বা বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বা বক্তব্য সংশোধনের ক্ষমতা রাখেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.