চবিতে পুলিশের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ

ওয়ান নিউজঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতাকে পরীক্ষা অংশগ্রহণ করতে না দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশের সাথে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়েছে।

এ ঘটনায় এক পুলিশসহ তিনজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। একজনকে আটক করেছে পুলিশ। আব্দুল্লাহ আল কায়সার শাকিল নামে এ ছাত্রলীগ কর্মী যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্র বলে জানাগেছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে ঘটনার সুত্রপাত ঘটে। এসময় বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে তালা মেরে দেয় এবং শাটল ট্রেনের হোস্পার পাইপ কেটে দেয়।

এর পর বেলা সোয়া ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বরে পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আকতারুজ্জামান জানান,বহিষ্কৃত এক ছাত্রের পরীক্ষায় অংশগ্রহণকে কেন্দ্র করে তার অনুসারীরা গেইটে তালা দিলে পুলিশ তারা খুলে দেয়। এতে তারা বাধা দিলে পুলিশের উপর হামলা করে। পুলিশ তাদের লাঠিচার্জ করে সরিয়ে দিয়েছে।

জানা যায়, ২০১৬ সালে চবি ছাত্রলীগ নেতা মাহবুবুল হক শাহিনের ওপর হামলার ঘটনায় যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী কায়সার শাকিলকে দুই বছরের জন্য বহিষ্কার করে প্রশাসন। বৃহস্পতিবার ছিল তার চতুর্থ বর্ষের স্নাতক ফাইনাল পরীক্ষা। কায়সার পরীক্ষা দিতে বিভাগে গেলে বহিষ্কৃত হওয়ায় তাকে অংশগ্রহণ করতে দেয়নি পরীক্ষা কমিটির সদস্যরা।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা পরীক্ষা হলের সামনে অবস্থান নেয়। এসময় পুলিশ তাদের লাঠি পেটা করে তাড়িয়ে দেয়। পরে তারা মেইন গেইটে গিয়ে তালা লাগিয়ে দেয়। এসময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ছাত্রলীগ কর্মীরা। এ ব্যাপারে যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন, কোন বহিষ্কৃত ছাত্রের পরিক্ষায় অংশ নেয়ার সুযোগ নেই। কায়সার যেহেতু বহিষ্কার তারও পরিক্ষা নেয়ার সুযোগ নেই। এনিয়ে তার পক্ষে কয়েকজন ছেলে এসে ঝামেলা করার চেষ্টা করে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.