খুরুশকুলে এক ইউপি মেম্বারের ছত্রছায়ায় তেতৈয়া এখন ইয়াবার স্বর্গরাজ্য

অনুসন্ধানী প্রতিবেদকঃ

কক্সবাজার সদর উপজেলা খুরুশকুল ইউনিয়নের তেতৈয়া বাজার এলাকা এখন মাদক ও ইয়াবার র্স্বগ রাজ্যে পরিণত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

সূত্রে জানা যায় যে, তেতৈয়া ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকার উঠতি বয়সের যুবকেরা নানা অপরাধে জড়িয়ে যাচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে আরো জানা যায়, কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুল ইউনিয়নের তেতৈয়া এলাকার ফকিরপাড়া, তেতৈয়া দক্ষিণ পাড়া,উত্তর পাড়া, হিন্দু পাড়াসহ প্রায় ১০ টি পয়েন্টে রমরমা বেচা কেনা হচ্ছে মরণব্যাধি ইয়াবার।

দিনে রাতে ভিন্ন কৌশলে গুটিকয়েক জনপ্রতিনিধির সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে এসব অবৈধ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন স্থানীয় জনতা।

অনুসন্ধানে উঠে আসে, উখিয়া -টেকনাফ থেকে একটি বড় সিন্টিকেট এসব ইয়াবা ক্রয় করে নিয়ে আসে।পরে এসব ইয়াবা বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত ব্যবসায়িরা মোটরসাইকেল যোগে তেতৈয়া এসে সিন্ডিকেট থেকে কিনে নিয়ে যায় ।

নামপ্রকাশ না ভার্সিটি পড়ুয়া এক ছাত্র জানান, প্রতিদিন রাত অনুমানিক ৯ টার দিকে অপরিচিত কিছু লোক তাদের এলাকায় প্রবেশ করতে দেখা যায় । কিন্তু সমাজের কিছু প্রভাবশালী লোকেরা এসব ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত এমনটি অভিযোগ তার।

এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, আমরা এই প্রভাবশালী ইয়াবা ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে পুলিশ ,র‌্যা।ব ডিবিসহ বিভিন্ন প্রশাসনকে অভিযোগ করিলে মদক ব্যবসায়ীরা পুলিশ আসার আগে পালিয়ে বেড়ায়।

অনেকে জানান, খুব সহজে চাহিবা মাত্র ইয়াবা হাতের মুঠোয় পৌঁছে যাচ্ছে এলাকার যুব, ছাত্র, তরুণদের কাছে । এতে করে এলাকায় বড় ধরণের বিশৃঙ্খলা দেখা দিচ্ছে প্রতিনিয়ত ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে।

অন্যদিকে,যার ফলে ভেঙ্গে যাচ্ছে অনেকের সুখের সংসার । এতে আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে চুরি, ডাকাতি , ধর্ষণ ইভটিজিং ,অপহরণসহ নানা অপরাধ ।

কিছু অবৈধ মাদক ব্যবসায়ীরা প্রকাশ্যে মরণব্যাধি ইয়ারা বিক্রির কার্যক্রম চালাচ্ছে।

গুটিকয়েক খারাপ মানুষের দ্বারা পরিচালিত এই ব্যবসা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। আজ ছোট বড় সবাই টাকার মালিক হতে চাই। গাড়ির মালিক হতে চাই। শহরে দিন দিন অবৈধ গাড়ির সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে মাদকের কারনে।

সরকার যেখানে সাধারন মানুষের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলো পূরনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন ঠিক তখনি এই ইয়াবা নামের মরনব্যধি যেন সব নচ্যাৎ করে দিচ্ছে।

বিভিন্ন সময়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অনেক ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করলেও পর্দার আড়ালে থাকা ভদ্র বেশি সিন্ডিকেট ধরা ছোয়ার বাহিরে রয়ে যায় বলে পুনরায় ইয়াবা ব্যবসায়ীরা নেটওয়ার্ক তৈরি করে এ ব্যবসা দেদারছে চালিয়ে যায়। ফলে খুরুশকুল তেতৈয়া যেন এখন টেকনাফের ইয়াবা রাজ্যে পরিনত।

আমাদের অনুসন্ধানী প্রতিবেদক এলাকাসুত্রে জেনেছেন, খুরুশকুল তেতৈয়া সওদাগর পাড়ার ইমতিয়াজ আহমদ মেম্বার এর নেতৃত্বে অসংখ্য ব্যক্তি এখন এই পেশায় জড়িয়ে পড়েছে।

মেম্বারের নেতৃত্বে রয়েছে মুজিব তেতৈয়া ইউসুফ ফকির পাড়া নিয়ন্ত্রণ করে,ফয়েজ প্রকাশ গুরাইয়া তেতৈয়া ইউসুফ ফকির পাড়া নিয়ন্ত্রণ করে, এবং জানে আলম প্রকাশ জাইন্না তেতৈয়া দক্ষিন পাড়ায় সিন্ডিকেট তৈরি করে দেদারছে ইয়াব কেনা বেচা করে যুব সমাজকে ধ্বংসের পথে নিচ্ছে।

এমন অভিযোগ পেয়ে আমাদের প্রতিবেদক মুঠোফোনে ইমতিয়াজ আহমেদ মেম্বার ০১৮২৯২৯৩৭৩১ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান,” তার এলকায় তিনি যা ইচ্ছা তা করবেন। যারা এসব বলে তাদের দেখে নেবে বলে ফোনের লাইন কেটে দেয়”।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হয় এলাকার চেয়ারম্যান মোঃ জসিম উদ্দিন ০১৮১৯৫২৩৪৫৬ এর সাথে তবে মুঠোফোনে তিনি মন্তব্য করতে রাজি হননি।

যদিও কক্সবাজার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ রনজিত বড়ুয়া এবিষয়ে খোজ খবর নেবেন জানান।

অন্যদিকে এলাকার সচেতন মহল দাবি করেন দ্রুত অভিযান পরিচালনা করে অবিলম্বে এসব অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দাবী করেন ।

Comments are closed.