কোরবানি দিতে পারছেন না অধিকাংশ সৌদি প্রবাসী

ডেস্ক নিউজ:

পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে সৌদি আরবে জমে উঠেছে কোরবানির পশুর হাট। সৌদি নাগরিকদের পাশাপাশি প্রবাসী বাংলাদেশিরাও পশু কিনতে ভিড় জমাচ্ছেন হাটগুলোতে। তবে অন্যান্য সময়ের তুলনায় এবার দাম কিছুটা বেশি বলে জানিয়েছেন প্রবাসীরা।

জেদ্দার মূল শহর থেকে কিছুটা দূরে আল খুমরা নামক স্থানে বিশাল জায়গার ওপর স্থায়ীভাবে বসানো হয়েছে পশুরহাট। সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক পরিচালিত এই হাটে মিলছে বিভিন্ন প্রজাতির গরু ছাড়াও ছাগল, দুম্বা এবং উট। প্রতিদিন স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকে এসব হাট। আর এই ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন বহু প্রবাসী বাংলাদেশিও।
কেউ বলেন, নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী গরু একটা নিতে পেরেছি। গত বছরের তুলনায় এ বছর গরু অনেক ভালো মনে হচ্ছে।
তবে, দাম এবার কিছুটা বেশি থাকায় দীর্ঘক্ষণ ঘুরেও পছন্দমতো পশু কিনতে না পেরে হতাশ প্রবাসীরা। অন্যদিকে বিক্রেতারা বলছেন করোনার কারণে বিভিন্ন দেশ থেকে পর্যাপ্ত পশু না আসায় এবং খাবারের চড়া মূল্যের কারণেই এবার পশুর দাম অন্যবারের তুলনায় একটু বেশি।
বাজার ঘুরে দেখা যায় যে দুম্বা করোনার আগের বছর গুলোতে দাম ছিল ৭০০ থেকে ৮০০ সৌদি রিয়াল, সেগুলো এখন বিক্রি হচ্ছে এক হাজার ৫০০ থেকে ২ হাজার রিয়ালে। আর যেসব গরু আগে বিক্রি হতো ৫ হাজার থেকে সাড়ে পাঁচ হাজার রিয়ালের মধ্যে, সেগুলো এবার বিক্রি হচ্ছে ৬ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ৮ হাজার রিয়ালে।
তবে, করোনা মহামারির কারণে এবার ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও অর্থাভাবে পশু কোরবানি দিতে পারছেন না বহু প্রবাসী বাংলাদেশি।

মন্তব্য করুন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্র রিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য বা বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বা বক্তব্য সংশোধনের ক্ষমতা রাখেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.