কর্ণফুলীতে ধর্ষণের ঘটনায় আরও ১জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে–

জে জাহেদ বিশেষ প্রতিবেদেকঃ

কর্ণফুলী উপজেলায় মধ্যরাতে তিন প্রবাসী ভাইয়ের বাড়িতে হানা দিয়ে স্বর্ণালঙ্কার লুটের পাশাপাশি চার নারী ধর্ষণের ঘটনায় সন্দেহভাজন আরও একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক হওয়া ওই যুবকের নাম বাপ্পী (২৩)।রোববার (২৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার চাতুরী-চৌমুহনী এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুল মোস্তফা বলেন, এই ঘটনায় আগে গ্রেফতার হওয়া আবুর সঙ্গে পরিচয় ছিল বাপ্পীর।

আমরা তাকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করেছি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গত ১২ ডিসেম্বর গভীর রাতে ধর্ষণের শিকার হন চার নারী।

ধর্ষিতদের মধ্যে তিনজন প্রবাসী তিন ভাইয়ের স্ত্রী, অন্যজন তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসা ননদ।

এই পরিবারের চার ভাইয়ের মধ্যে তিনজন মধ্যপ্রাচ্যপ্রবাসী।

তিন ভাইয়ের স্ত্রী তাদের শাশুড়ি ও দুই সন্তান নিয়ে এই বাড়িতে থাকতেন। ধর্ষিতা গৃহবধূদের একজন ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছিলেন।

ঘটনার পাঁচদিন পর এ ঘটনায় ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদের হস্তক্ষেপে কর্ণফুলী থানায় মামলা হয়। এখন পর্যন্ত ৪জনকে গ্রেফতার দেখানোসহ ১জনকে আটক করে জিজ্ঞাসা করছে স্থানীয় প্রশাসন।

Comments are closed.