কক্সবাজারে ট্রলার থেকে ১০ মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায়, গ্রেপ্তারঃ২

ওয়ান নিউজঃ কক্সবাজার শহরের নাজিরারটেক সমুদ্র উপকূলে ভেসে আসা ট্রলার থেকে ১০ মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার দুজন হলেন- বাইট্টা কামাল ও মাঝি করিম সিকদার। মঙ্গলবার বিকালে জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মাহফুজুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এই ঘটনায় ট্রলারের মালিক নিহত শামসুল আলমের স্ত্রী রোকেয়া আক্তার সদর মডেল থানায় চার জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৫০ থেকে ৬০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলায় বাইট্টা কামালকে ১ নাম্বার আর করিম সিকদার ৪ নাম্বার আসামি করা হয়।

এদিকে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার পেছনে মাদক চোরাকারবারি, পূর্ব শত্রুতা রয়েছে বলে সন্দেহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর।

সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান কক্সবাজারের পুলিশ সুপার (এসপি) মাহফুজুল ইসলাম। গ্রেফতার দুজন ১০ খুনের সঙ্গে জড়িত দাবি করে এসপি বলেছেন, কী কারণে তাদের হত্যা করা হয়েছে তা এখনো জানা সম্ভব হয়নি। তাদের রিমান্ডে নিয়ে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

গ্রেফতার দুজন হলেন কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ি ইউনিয়নের সাইরার ডেইল এলাকার মুহাম্মদ ইলিয়াছের ছেলে বাইট্টা কামাল (৪৫) ও হোয়ানক ইউনিয়নের মোহরাকাটা গ্রামের মৃত মকবুল আহমদের ছেলে নরুল করিম ওরফে করিম সিকদার মাঝি (৫৫)। তাদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত আগের কোনো মামলার নথির সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে এসপি মাহফুজুল ইসলাম বলেন, ভাসমান ট্রলারে অর্ধগলিত ১০ মরদেহের রহস্য উদ্ঘাটনে কাজ চলছে। প্রথাগত পদ্ধতি ব্যবহার করে পুলিশ ছয় মরদেহের পরিচয় নিশ্চিত করেছে। স্বজনদের কাছে মরদেহ হস্তান্তরও করা হয়েছে। অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে বাকি চার মরদেহের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে। মরদেহগুলো কক্সবাজার সদর হাসপাতালের হিমাগারে রেখে ডিএনএ নমুনা ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ঘটনার পর পুলিশের অন্যান্য ইউনিটের পাশাপাশি জেলা পুলিশের পাঁচটি বিশেষ চৌকস টিম অপরাধীদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করে। টানা ৪৮ ঘণ্টার অভিযানে সোর্স ও গণমাধ্যম থেকে প্রাপ্ত তথ্য যাচাই-বাছাই ও প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বাইট্টা কামাল ও করিম সিকদারকে পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। তারা এজাহারনামীয় ১ ও ৪ নম্বর আসামি। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সঙ্গে তাদের সংশ্লিষ্টতার সত্যতা পাওয়া গেছে। তাদের আদালতে সোপর্দ করে রিমান্ড আবেদন করা হবে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.