ওবায়দুল কাদেরের পছন্দের সহায়ক সরকার চায় না বিএনপি: ফখরুল

ওয়ান নিউজঃ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের যে সহায়ক সরকারের কথা বলছেন তা সঠিক নয় মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ওবায়দুল কাদেরের পছন্দের সহায়ক সরকার চায় না বিএনপি। একটি দল নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের কথা বলছি আমরা। যারা সকল দলের জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করবে।

একদিন আগে ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্য ‘শেখ হাসিনার সরকারই আগামী নির্বাচনে সহায়ক সরকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে’ এই প্রশ্নের উত্তরে সোমবার দুপুরে বিএনপি মহাসচিব এ কথা বলেন।

সকাল ১১টা ৪৫ মিনিটে ফখরুল ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীকে দেখতে পিজি হাসপাতালে যান। প্রায় আধা ঘণ্টা তিনি কাদের সিদ্দিকীর সঙ্গে সময় কাটান।  হাসপাতাল থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন ফখরুল।

তিনি বলেন, এদেশের রাজনৈতিক সংস্কৃতিতে দলীয় সরকারের অধীনে কোন সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। অতীতে আমরা তা দেখেছি। তাই আগামী নির্বাচন হতে হবে সহায়ক সরকারের অধীনে।  আওয়ামী লীগই ১৯৯৬ সালে তার জন্য আন্দোলন করেছিলো। কিন্তু ক্ষমতায় এসে এখন তারা নিজেদের ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য সহায়ক সরকারের বিরোধিতা করছে।

ফখরুল বলেন,  এবার আর কোন একদলীয় নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। জনগণ তা মানবে না।  বিএনপি অবশ্যই নির্বাচনে যাবে। কিন্তু নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের অধীনেই যাবে। প্রয়োজনে সংবিধান পরিবর্তন করে তা করতে হবে। সংবিধান জনগণের প্রয়োজনে পরিবর্তন হতে পারে।

তার জন্য আলাপ, আলোচনা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, সংলাপ প্রয়োজন। একটি সুন্দর সমাধানে আসতে হবে। বিরাজমান সমস্যা সমাধানে সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে।

রোহিঙ্গাদের ওপর যা হচ্ছে তা অমানবিক আচরণ মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকারের উচিত অসহায় রোহিঙ্গাদের সাময়িক আশ্রয় দেয়া। তারপর মিয়ানমার সরকারকে বাধ্য করতে হবে যেন রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত নিয়ে যায়।

এসময় রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে সরকারকে জাতিসংঘের সঙ্গে কথা বলার পরামর্শ দেন ফখরুল।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.