এই ৪ জনও এসে গেলেন বার্সেলোনার রাডারে!

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ নেইমারের বিকল্প সন্ধ্যানে নেমে সত্যি সত্যিই ঘাম বেরিয়ে যাচ্ছে বার্সেলোনার কর্তাদের। দৌড়-ঝাপে জুতোর তলা ক্ষয় করেও ‘ফাইনাল’ করতে পারছেন না কোনো কিছু। স্পেনের গণমাধ্যমের খরব অনুযায়ী কুতিনহোর সঙ্গে চুক্তির দ্বারপ্রান্তেই নাকি পৌঁছে গিয়েছিল বার্সেলোনা। পাশাপাশি বার্সেলোনা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের ফরাসি ফরোয়ার্ড আতোইন গ্রিজমানের সঙ্গেও। কিন্তু বার্সেলোনা নাকি এখন বুঝতে পারছে, কুতিনহো বা গ্রিজমানের সঙ্গে চুক্তি করাটা কঠিন হবে। কেন, সেই ব্যাখ্যায় পরে আসছি। নতুন খবর হলো, কুতিনহো-গ্রিজমানের পাশাপাশি খেলোয়াড় কেনার পরিকল্পনায় আরও ৪টি নাম সংযোজন করেছে বার্সেলোনা!

বার্সেলোনার রাডারে নতুন করে সংযোজন হওয়অ সেই ৪ জন হলেন, ব্রাজিলিয়ান ক্লাব গ্রেমিও’র ফরোয়ার্ড আর্থার, ফরাসি ক্লাব অলিম্পিক লিঁ’ওর নাবিল ফেকির, ইংলিশ ক্লাব আর্সেনালের জার্মান মিডফিল্ডার মেসুত ওজিল এবং চীনা ক্লাব সাংহাই শেনহুয়ার ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড অস্কার।

গত আগস্টে নেইমার পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই কুতিনহোর পিছু নিয়েছে বার্সেলোনা। কিন্তু নেইমারের স্বদেশি এই ফরোয়ার্ডকে গ্রীষ্মের দলবদলের সময় আনতে পারেননি বার্সা। তবে গত কিছুদিন আগের খবর, কুতিনহোর সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে লিভারপুল ও বার্সেলোনা। চুক্তির অঙ্কটাও নাকি পাকা, ১৫০ মিলিয়ন ইউরো। কিন্তু স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার খবর, বার্সেলোনা এখন বুঝতে পারছে, লিভারপুল তাদের সঙ্গে যোগাযোগ কমিয়ে দিয়েছে!

কুতিনহোর পাশাপাশি যে গ্রিজমানের দিকে ছুটেছিল বার্সেলোনা, সেখানেও একটা বাধা আছে। গ্রিজমানের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করায় বার্সেলোনার কাছে সরাসরি ফিফার কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে অ্যাতলেতিকো। বার্সেলোনা তাই বুঝতে পারছে, শেষ পর্যন্ত কুতিনহো বা গ্রিজমানের সঙ্গে চুক্তি করা সম্ভব নাও হতে পারে।

সেজন্যই আগে-ভাগেই বিকল্পের দিকে নজর দিয়েছে। স্প্যানিশ লা লিগায় দুর্বার গতিতেই ছুটছে বার্সেলোনা। কিন্তু কাতালন ক্লাবটির ভাবনা জুড়ে এখন উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ দিকের কঠিন পরীক্ষার কথা মাথায় রেখেই দলের শক্তিবৃদ্ধিতে মরিয়া। যে করেই হোক, অন্তত একজন ভালো মানের আক্রমণভাগের খেলোয়াড়কে দলে ভেড়াতে চাইছে তারা।

সেই লক্ষ্যেই আর্থার, ফেকির, ওজিল ও অস্কারের নামটি সংযোজন করেছে সম্ভাব্য খেলোয়াড় ক্রয়ের তালিকায়। গ্রেমিও’র ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড আর্থারের সঙ্গে কথাও বলেছে বার্সেলোনা। ব্রাজিলের ২১ বছর বয়সী তরুণকে তাদের খুবই পছন্দ। তার খেলার ধরণ নাকি কিংবদন্তি মিডফিল্ডার জাভি হার্নান্দেজের মতো।

দামও নাগালের মধ্যেই। ২৫ মিলিয়ন ইউরোর মতো হলেই নাকি কেনা যাবে আর্থারকে। কিন্তু বার্সার এই নতুন টার্গেটের পথেও একটা বাঁধা আছে। সেই বাঁধার নাম রিয়াল মাদ্রিদ। রিয়ালও হাত বাড়িয়েছে ব্রাজিলের উদীয়মান তরুণের দিকে।

ব্রাজিলের আরেক খেলোয়াড় অস্কারকেও পছন্দ বার্সার। ২৬ বছর বয়সী এই ব্রাজিলিয়ান বর্তমানে চীনের সাংহাই শেনহুয়ায় আছেন। গ্রীষ্মে চীনা ক্লাব গুয়াংঝু এভারগ্রান্ডে থেকে আরেক ব্রাজিলিয়ানকে কিনে এনেছে বার্সা। নিন্দুকদের মিথ্যা প্রমাণ করে সেই পওলিনহো এখন বার্সেলোনার অন্যতম তুরুপের তাস।

কাতালন ক্লাবটির বিশ্বাস, অস্কারও ন্যু-ক্যাম্পে ভালো করবেন। কিন্তু সমস্যা হলো, সাংহাইয়ের সঙ্গে অস্কারের বিশাল অঙ্কের চুক্তি এবং উচ্চমূল্যের বেতন। এ বছরই চেলসি থেকে ৬১ মিলিয়ন ইউরোতে অস্কারকে কিনেছে সাংহাই। চীনা ক্লাবটিতে অস্কারের বার্ষিক বেতন ২৫ মিলিয়ন ইউরো। এসব মাথায় রেখেও অস্কারকে নিজেদের লক্ষ্য বানিয়ে ফেলেছে বার্সা।

অলিম্পিক লিঁ’ওর নাবিল ফেকিরের উপর অনেক দিন ধরেই দৃষ্টি পড়েছে বার্সেলোনার। আর্থারের মতো ফ্রান্সের ২৪ বছর বয়সী আক্রমণাত্মক মিডফিল্ডারকেও খুব পছন্দ বার্সার। ৫০ মিলিয়ন ইউরোর মধ্যেই তার সঙ্গে চুক্তি করতে পারবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বার্সার রাডারে অন্য যে নামটি, সেই মেসুত ওজিলের সঙ্গে আর্সেনালের চুক্তির মেয়াদ আগামী জুন পর্যন্ত। ফলে অল্প টাকাতেই তাকে আনা যাবে বলে ধারণা। বেতনও খুব বেশি দিতে হবে না, বছরে ৯ মিলিয়ন ইউরো হলেই চলবে। ওজিলের সামর্থও সবার জানা। দীর্ঘ ৩টি বছর খেলে গেছেন রিয়াল মাদ্রিদে।

কিন্তু সমস্যা হলো, এরই মধ্যে ওজিলের বয়স হয়ে গেছে ২৯। তারপরও চুক্তির অঙ্ক এবং বেতনের কথা মাথায় রেখে ওজিলের নামটি যোগ করে নিয়েছে বার্সেলোনা।

এখন অপেক্ষা শুধু পাকাপাকিভাবে মাঠে নামা। এই ৪ জনের পাশাপাশি বার্সেলোনা কুতিনহো এবং গ্রিজমানের সঙ্গেও দেন-দরবার অব্যাহত রাখবে বলে জানিয়েছে মার্কা।

কথা-বার্তা ফাইনাল করে বার্সেলোনা শেষ পর্যন্ত কাকে দলে ভেড়াতে পারে, এটাই এখন দেখার।

Comments are closed.