ঈদগড় ঈদগাঁও সড়কে ডাকাতি ও  অপহরণ ২।

 

 

মাসেদুল হক আরমান রামু ঈদগড়,

ঈদগাঁও – ঈদগড় সড়কের কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামবাদ ইউনিয়ন ও রামু উপজলোর ১ নং ঈদগড় সড়কের সীমানায় গজালিয়া এলাকায় ২৮-১১-২০১৭ ইং মঙ্গলবার রাত অানুৃমানিক ১০ টার সময় ঈদগাঁও থেকে ঈদগড় পিরার পথে মটরসাইকেল ও সি এন জি ব্যারিকেড দিয়ে ৮- ১০ জন মুখোশ ধারী সন্ত্রাসী সি এনজি ও মটরসাইকেলে থাকা যাত্রীদের কাছ থেকে মারধর করে নগদ ৪০ – ৫০ হাজার টাকা ও মোবাইল কেড়ে নিয়ে যাওয়ার সময় ঈদগড়ের লেইঙ্গা পাড়া এলাকার মোঃ খুইল্লা মিয়ার পুত্র মোঃ নুরুল আমিন ( ২৯)ও মৃত আছহাব মিয়ার পুত্র মোঃ হেলাল উদ্দীন ( ১৯) কে অপহরণ করে নিয়ে যায়। সি এন জির অপর যাত্রি আব্দুল্লাহ জানান আমাকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার সময় আমি কৌশলে পালিয়ে আসি কিন্তু সে সি এন জিতে থাকা কালিন আমার বড় বোনের জামাই  মোঃ নুরুল আমিন কে অপহরণ করে নিয়ে যায়। হেলাল উদ্দীনের চাচাত ভাই সাবেক এম ইউপি ও ঈদগড় ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের যু্গ্ন আহবায়ক মোঃ বেলাল উদ্দীন জানান  আমার ছোট ভাই  ঈদগাঁও জরুরি কাজ সেরে ঈদগাঁও থেকে মোটরসাইকেলে পেরার পথে উল্লেখিত স্হানে অপহরণের শিখার হন। এ ব্যাপরে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দের ইনচার্জ মিনহাজ( ভুইয়া)’র  কাছে জানতে চাইলে জানান আমি বিষয়টা শুনেছি খোজ নেওয়ার চেষ্টা করছি। রামু থানার এ এস আই ঈদগড় পুলিশ ক্যাম্পের দায়িত্বপাপ্ত মোর্শেদ আলম জানান ঈদগাঁও – ঈদগড় সড়কে রাত ৮ টার সময় বন্ধ থাকলে ও রাত ১০ টার পরও কিচু অসাধু ড্রাইভার তা না মানার কারণে এই রকম দুর্ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি শোনার পর পরই আমি সি এন জি টিকে আটক করি  এবং ঘটনা টি যদি ও আমার এলাকায় নয় অপহৃতদের উদ্দারের চেষ্টা ও অভিযানে ব্যাস্ত আছি বলে জানান এই রিপোট লিখার সময় রাত  ১- ২০  মিনিট অপহৃতদের কোন ধরনের খোঁজ খবর পাওয়া যাইনি।

Comments are closed.