ইয়েমেনে সৌদি সামরিক জোটের হামলায় নিহত ১৬০

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ ইয়েমেনের পূর্বাঞ্চলের মারিব প্রদেশে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের বিমান হামলায় দেশটির বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথির অন্তত ১৬০ সদস্য নিহত হয়েছেন। শনিবার সৌদি জোটের এক বিবৃতিতে মারিবে গত ২৪ ঘণ্টায় বিমান হামলায় হুথিদের এই প্রাণহানি ঘটেছে বলে জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে সৌদি জোট বলেছে, মারিবের আবদিয়া জেলায় জোটের বিমান হামলায় ইরান-সমর্থিত হুথি গোষ্ঠীর ১৬০ সদস্য নিহত হয়েছেন। হুথিদের লক্ষ্য করে আবদিয়া জেলায় ৩২টি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এতে হুথিদের ১১টি সামরিক যানও ধ্বংস হয়েছে।

সরকারি সৌদি প্রেস এজেন্সির উদ্ধৃতি দিয়ে জোট জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় হুথিদের লক্ষ্য করে আবদিয়া জেলায় ৩২টি বিমান হামলা চালানো হয়েছে। এতে হুথিদের ১১টি সামরিক যানও ধ্বংস হয়েছে।

জোট জানিয়েছে, গত সোমবারের হামলায় মারিব প্রদেশে ৭০০ জনের বেশি ইরান সমর্থিত হুথি সদস্যের প্রাণহানি ঘটেছে। আবদিয়া মারিব থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থার মতে, চলতি বছর মারিব প্রদেশে হাজার হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে, তাদের সংখ্যা প্রায় ১০ হাজার।

২০১৪ সালে ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার হুথিরা মারিব থেকে ১২০ কিলোমিটার পশ্চিমে রাজধানী সানা দখল করে। ২০১৫ সালের শুরুর দিকে হুথি বিদ্রোহীদের হামলার মুখে সৌদি-সমর্থিত ইয়েমেনের ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর আল হাদি ক্ষমতা ছেড়ে সৌদি আরবে পালিয়ে যান। ক্ষমতাচ্যুত এই প্রেসিডেন্টকে ফেরাতে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ইয়েমেনে হুথিদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে।

জাতিসংঘ ইয়েমেনকে বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ মানবিক সংকট বলেছে। দেশেটিতে হাজার হাজার মানুষ মারা গেছে এবং লাখ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে।

জাতিসংঘ আরও বলছে, ইয়েমেনের অর্ধেকেরও বেশি মানুষ খাদ্য ও ওষুধের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের গুরুতর সংকটে ভুগছেন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.