আন্দামান সাগরে ভাসমান রোহিঙ্গাদের উদ্ধারের আহ্বান জাতিসংঘের

ডেস্ক নিউজ:
আন্দামান সাগরে আটকেপড়া রোহিঙ্গাদের অবিলম্বে উদ্ধারের আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর)।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ভাসমান ওই রোহিঙ্গারা একটি নৌযানে করে আন্দামান সাগরে পৌঁছায়। নৌকার ইঞ্জিন বিকল হয়ে গেলে তারা সাগরে আটকে পড়ে। নৌযানে থাকা অনেকেই খাবার ও পানি ছাড়া মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়েছে।

নৌকার কিছু যাত্রী মারা গেছে ও অবিলম্বে তাদের উদ্ধার করা না হলে আরও প্রাণহানির আশঙ্কা করছে শরণার্থীবিষয়ক সংস্থাটি। প্রায় ১০ দিন আগে রোহিঙ্গাদের ওই দলটি বাংলাদেশের কক্সবাজার ত্যাগ করে।

এক বিবৃতির মাধ্যমে ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের অবস্থান সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট তথ্যের অভাবে তারা ওই এলাকার পরিচালিত সব নৌ কর্তৃপক্ষের দ্রুত সহযোগিতা কামনা করেছে। জীবন বাঁচাতে ও ভবিষ্যৎ ট্র্যাজেডি প্রতিরোধ করতে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন উল্লেখ করে বিবৃতিতে সংশ্লিষ্ট দেশের সরকারের প্রতি উদ্ধারকৃতদের মানবিক সহযোগিতা ও কোয়ারেন্টিনে রাখতে বলা হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ইউএনএইচসিআরের কর্মকর্তা ক্যাথরিন স্টাবারফিল্ড বিবিসিকে জানান, সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ভোরের দিকে সর্বশেষ ওই নৌযানটির সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। নৌযানে থাকা শরণার্থীদের জরুরি ভিত্তিতে সহায়তা প্রয়োজন।

ভারতীয় কোস্ট গার্ডের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেছিলেন, রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নৌকার অবস্থান শনাক্ত হয়েছে ও নিরাপদে আছে বলে জানা গেছে। কিন্তু নৌকার অবস্থানরতদের অবস্থা সম্পর্কে জানা যায়নি বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মিয়ানমারের সংখ্যালঘু মুসলিম জনগোষ্ঠী রোহিঙ্গারা দেশটিতে বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠদের নিপীড়নের মুখে মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায় যাওয়ার আশায় সরু নৌকায় করে বিপজ্জনক সমুদ্রপথ পাড়ি দেয়। ২০১৭ সালে ভয়াবহ জাতিগত নিধনের মুখে ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়।

Comments are closed.