আটলান্টিকে ইরানের প্রথম যুদ্ধজাহাজ বহর, উদ্দেশ্য নিয়ে জল্পনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইরান নৌবাহিনীর দু’টি যুদ্ধজাহাজের একটি বহর প্রথমবারের মতো আটলান্টিক মহাসাগরে পৌঁছেছে। ইরানের উপ সেনাপ্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল হাবিবুল্লাহ সায়ারি দেশটির সংবাদমাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১১ জুন) হাবিবুল্লাহ সাইয়ারি বলেন, ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি ডেস্ট্রয়ার ‘সাহান্দ’ এবং ‘মাকরান’ এখন আটলান্টিক মহাসাগরে অবস্থান করছে। গত ১০ মে ইরানের বন্দর আব্বাস থেকে নৌবহর যাত্রা শুরু করে।

তিনি জানান, ইরান থেকে আটলান্টিক মহাসাগরে যেতে আফ্রিকা মহাদেশ ঘুরে ১২ হাজার কিলোমিটার সমুদ্রপথ পাড়ি দিয়েছে জাহাজ দু’টি। দীর্ঘ এই যাত্রাপথে ইরানি নৌবহর কোনো বন্দরে যাত্রাবিরতি দেয়নি।

এদিকে জাহাজ দু’টির গতিবিধির দিকে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে গভীর নজর রাখছে যুক্তরাষ্ট্র। পেন্টাগনের কিছু কর্মকর্তা সিএনএনকে বলেছেন, আটলান্টিকের আন্তর্জাতিক পানিসীমায় পৌঁছা ওই দু’টি জাহাজের গতিবিধির দিকে নজর রাখা হচ্ছে। ঠিক কী কারণে এগুলো আটলান্টিক পর্যন্ত আসলো তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে ধারণা করা হচ্ছে, এসব জাহাজের গন্তব্য দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ভেনেজুয়েলে। ওই দেশটিকে অস্ত্র সহায়তা দিতেই দু’টি জাহাজের এ বহর প্রথমবারের মতো আটলান্টিক পাড়ি দিচ্ছে।

জাহাজ দু’টির উদ্দেশ্য নিয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলেনি ইরানও। হাবিবুল্লাহ সাইয়ারির দাবি, আন্তর্জাতিক জলসীমায় ইরানি যুদ্ধজাহাজের উপস্থিতি নিশ্চিত করতেই জাহাজ দু’টি আটলান্টিক মহাসাগরে গিয়েছে। ইরান থেকে দূরবর্তী অঞ্চলে দেশটির স্বার্থ রক্ষা ও আন্তর্জাতিক জলসীমায় ইরানি পতাকার উড়াতেই সর্বোচ্চ নেতার নির্দেশে এ মিশন পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানান হাবিবুল্লাহ সাইয়ারি।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.