টেকনাফে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সাবেক সচিব ও বীর মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার সমাহিত

মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, টেকনাফ:
টেকনাফের হ্নীলায় রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সাবেক সচিব,বীর মুক্তিযোদ্ধা,নিরহংকার ও সাদা মনের মানুষ এইচএম দেলোয়ারকে ২য় নামাজে জানাজা শেষে স্থানীয় গোরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়েছে।এই মহান ব্যক্তির মৃত্যুতে বিভিন্ন মহল শোক প্রকাশ করেছেন।
২৬ডিসেম্বর সকাল ১১টায় উপজেলার হ্নীলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এইচএম ইউনুছ বাঙ্গালীর পরিচালনায় জানাজা পূর্ব এক স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মরহুমের ছোট ভাই ও ইউপি চেয়ারম্যান এইচকে আনোয়ার,স্থানীয় এমপি আব্দুর রহমান বদি,হ্নীলা গুহাফার প্রতিষ্ঠাতা ডাঃ জামাল আহমদ,কুতুবদিয়া-মহেশখালীর এমপি আশেক উল্লাহ রফিক,উখিয়া-টেকনাফের সাবেক এমপি আলহাজ্ব অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী,কুতুবদিয়া-মহেশখালীর সাবেক এমপি আলমগীর মোহাম্মদ মাহফুজ উল্লাহ ফরিদ,জাতীয় পার্টির জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী সালাহ উদ্দিন মাহমুদ চৌধুরী,টেকনাফ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আহমদ,সাবেক টেকনাফ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শফিক মিয়া,রাজাপালং ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী ও হাইকোর্টের আইনজীবি এডভোকেট হেলাল উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ। এছাড়া টেকনাফ পৌরসভার মেয়র হাজী মোহাম্মদ ইসলাম,মহেশখালী পৌরসভার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মকসুদ মিয়া ও হোয়াইক্যং মডেল ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নুর আহমদ আনোয়ারী,কক্সবাজার জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার আইয়ুব বাঙ্গালী,টেকনাফ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার জহির আহমদ,ডেপুটি কমান্ডার সিরাজুল কবিরসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার হাজারো জনতা উপস্থিত ছিলেন।এরপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শফিউল আলমের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধাদের সমন্বয়ে পুলিশের একটি চৌকষদল রাষ্ট্রীয় সম্মান গার্ড অব অনার প্রদানের পর নামাজে জানাজা শেষে পানখালী গোরস্থানে এই মহান ব্যক্তিকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়। উল্লেখ্য তিনি গত ২৩ডিসেম্বর বিকাল ৩টায় ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি..রাজেউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০বছর। তিনি টেকনাফের হ্নীলা পশ্চিম পানখালী মরহুম আমির আলী মাষ্টার বাড়ির বড় সন্তান। মৃত্যুকালে তিনি গর্ভধারিনী মা,স্ত্রী,২ছেলে,ভাই-বোন,আত্মীয়-স্বজন,শুভাকাংখী ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। হাসান মোহাম্মদ দেলোয়ার পাক আমলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চাকরীতে যোগদান করেন। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু হলে তিনি দেশে এসে সক্রিয়ভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেন। দেশ স্বাধীনের পর তিনি সরকারী গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন দপ্তরে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি জেলা প্রশাসক,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব,বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দক্ষতা এবং সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালনের পর অবসর গ্রহণ করেন। পরবর্তীতে চাকুরী জীবনে দক্ষতা এবং বিশ^স্থতার কারণে সরকার তাঁকে চুক্তিভিত্তিক বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান ও বিটিসিএলের চেয়ারম্যানসহ সম্মানজনক পদে অধিষ্টিত করেন। একজন সৎ,মেধাবী কর্মকর্তা ও সাদা মনের মানুষ হিসেবে দেশজুড়ে তাঁর সুখ্যাতি রয়েছে। তিনি গত ২১ডিসেম্বর ঢাকায় স্ট্রোক করলে দ্রুত স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২২ডিসেম্বর তাঁকে উচ্চ পর্যায়ের বিশেষ মেডিকেল টীম অপারেশন করেন। জ্ঞান ফিরে না আসায় হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়। ২৩ডিসেম্বর বিকাল ৩টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। পরদিন ঢাকায় তাঁর ১ম জানাজা অনুষ্টানের পর ২৬ডিসেম্বর ২য় জানাজা শেষে দাফন করা হয়।
এদিকে তাঁর মৃত্যুতে উখিয়া-টেকনাফের এমপি আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদি,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আহমদ,সাবেক এমপি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী,সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশর,সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শফিক মিয়া,সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এইচএম ইউনুছ বাঙ্গালী,কক্সবাজার জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার আইয়ুব বাঙ্গালী,টেকনাফ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার জহির আহমদ,ডেপুটি কমান্ডার সিরাজুল কবির,হোয়াইক্যং মডেল ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নুর আহমদ আনোয়ারী,উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সেলিম সিকদার,মাহবুব মোরশেদ,হ্নীলা ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৬নং ওয়ার্ড ইউপি মেম্বার আবুল হোছন,১নং ওয়ার্ডের বশির আহমদ,২নং ওয়ার্ডের ফরিদুল আলম,৩নং ওয়ার্ডের শামসুল আলম বাবুল,৪নং ওয়ার্ডের হোছাইন আহমদ,৫নং ওয়ার্ডের জামাল উদ্দিন,৭নং ওয়ার্ডের জামাল হোছাইন,৮নং ওয়ার্ডের নুরুল হুদা,৯নং ওয়ার্ডের মোহাম্মদ আলী মেম্বার ও ইউপি সচিব হাকিম উদ্দিন পাহাড়ীসহ কর্মচারী,হ্নীলা বাজার পরিচালনা কমিটির সেক্রেটারী অধ্যাপক জহির আহমদ, সদস্য মুফিজুল ইসলাম,হ্নীলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি শেখ মুহাম্মদ রফিক,সদস্য সচিব মৌঃ আব্দুল মন্নান,হ্নীলায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা এই মহৎ ব্যক্তির মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Comments are closed.