অনেক পরিবর্তন আসছে ক্রিকেট আইনে

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ ক্রিকেটের আইন কানুনে আসছে ব্যাপক পরিবর্তন। ২৩ ও ২৪ মে লন্ডনে বসেছিল ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসির ক্রিকেট কমিটির বৈঠক। সেখানে অনেকগুলো সুপারিশ করা হয়েছে। অনিল কুম্বলে ওই কমিটির চেয়ারম্যান। তার কমিটি বলছে, ক্রিকেটের কাঠামোয় পরিবর্তনের এটাই সময়। নতুন একটি আইন খুব দরকার। যেটি তারা বেছে নিতে চাচ্ছেন ক্রিকেটের আইন প্রণয়নের প্রাচীন সংস্থা মেরিলবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) দেখানো পথ ধরে।

কিছুদিন আগে এমসিসি বেশ কিছু সুপারিশ দিয়েছিল আইসিসির কাছে। যেখানে আধুনিক সময়ের সাথে তাল মেলাতে বেশ কিছু আইন বদলের কথা বলা হয়েছিল। একেবারে নতুন অনেক কিছু অন্তর্ভূক্ত করার কথাও বলেছিলেন তারা। তাদের সুপারিশ নিয়ে কাজ করেছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি। বিশ্বের বরেণ্য সব ক্রিকেট ব্যক্তিত্বদের নিয়ে গঠিত এই কমিটি তাদের দেওয়া আরো কিছু আইন জুড়তে বলেছে আইসিসিকে।

এই কমিটি একটি টেস্ট প্রতিযোগিতা চালু করতে সর্বসম্মত সমর্থন পেয়েছে। টেস্টকে আরো জীবন্ত রাখতে যা খুব জরুরি। অলিম্পিক গেমসে ক্রিকেট যোগ করার ব্যাপারটিও তাদের পুরো সমর্থন পাচ্ছে। আইসিসির প্রধান নির্বাহী কমিটির বৈঠকে তারা সুপারিশ দিচ্ছেন সকল আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে ডিআরএস প্রথা চালু করার। কমিটি বলছে, এলবিডাব্লিউতে আম্পায়ার্স কলের ক্ষেত্রে কোনো দল রিভিও হারাবে না। তেমনটা হলে টেস্টে ৮০ ওভারের রিভিউ সিস্টেম বিলুপ্ত হবে।

আইসিসির ক্রিকেট কমিটি ২০১৭ কোড এ এটাকে নিউ ল’জ অব ক্রিকেট বলছে। তাদের সুপারিশের বেশিরভাগকে আইন হিসেবে প্রণয়ন করার যুক্তি দেখাচ্ছে। তাদের সুপারিশ, খেলোয়াড়দের কেউ মাঠে সন্ত্রাস বা গুরুতর অপরাধ করলে আম্পায়ার যেন তাকে লাল কার্ড দেখিয়ে বের করে দিতে পারেন। এছাড়া বাকি সব আচরণ আইসিসির বিদ্যমান কোড অব কন্ডাক্টে বিবেচিত হয়। এমসিসির দেওয়া ব্যাটের সাইজের পরিবর্তনের বিষয়টিকে আইনে অন্তর্ভূক্ত করতে বলেছে ক্রিকেট কমিটি।

আরো একটি ব্যাপার আছে। একজন ব্যাটসম্যান তার সীমানায় পৌঁছাতে পেরেছেন কি না তা নিশ্চিত করতে নতুন একটি ভাবনা সুপারিশ করেছে কমিটি। তারা বলছে, ক্রিজের মধ্যে দৌড়ে বা ডাইভ দিয়ে ব্যাট রাখার পর সেটির বাউন্স নির্ধারণ করে দেবে ওই ব্যাটসম্যান আউট না নট আউট। কমিটি এও বলছে যে থার্ড আম্পায়ারদেরই উচিৎ ইন্সট্যান্ট রিপ্লের মাধ্যমে সকল নো বল করা।

আইসিসির নির্বাহী কমিটি এসব সুপারিশ অনুমোদন দিলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তা ১ অক্টোবর থেকে কার্যকর হয়ে যাবে।

Comments are closed.