ম্যানচেস্টার কনসার্টে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, নিহত ২২

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টারে ভয়াবহ আত্মঘাতি হামলায় ২২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৫৯ জন। এই বিস্ফোরণকে ‘ভয়ংকর সন্ত্রাসী হামলা’ বলেই মনে করছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে।

স্থানীয় সময় সোমবার (২২ মে) রাতে ম্যানচেস্টারে মার্কিন সংগীতশিল্পী অ্যারিয়ানা গ্র্যান্ডের এক কনসার্ট শেষে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনাকে সন্ত্রাসী হামলা বলে মনে করছে যুক্তরাজ্যের পুলিশ।

ব্রিটিশ পরিবহন পুলিশ বলছে, কনসার্ট শেষ হতে না হতেই কনসার্টের হলরুমে এই বিস্ফোরণ ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী অ্যান্ডি হলি বলেন, তাঁর স্ত্রী ও কন্যা ওই কনসার্টে গিয়েছিলেন। তাঁদের আনতে গিয়ে বাইরে অপেক্ষা করছিলেন তিনি। হলি আরও বলেন, ‘হঠাৎ করেই ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। আমি বেশ কিছুটা দূরে ছিটকে পড়ি। পরে বুঝতে পারি, ভয়ংকর কোনো ঘটনা ঘটেছে। সেখানে আগুন জ্বলছে। হতাহত রক্তাক্ত লোকজনের মধ্যে আমি স্ত্রী-কন্যাকে খুঁজতে থাকি। তাদের না পেয়ে পুলিশের কাছে যাই। শেষ পর্যন্ত স্ত্রী-কন্যাকে খুঁজে পেয়েছি। তারা ভালো আছে।’

আর যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছেন, এ ঘটনার পেছনে দুজন আত্মঘাতী হামলাকারী রয়েছে বলে তাদের সন্দেহ। সন্ত্রাসী হামলার সন্দেহ সত্যি প্রমাণিত হলে ম্যানচেস্টারের এ ঘটনা হবে ২০০৫ সালে লন্ডনে চার আত্মঘাতী হামলায় ৫২ জন নিহত হওয়ার পর সবচেয়ে বড় ধরনের হামলার ঘটনা।

বিবিসি জানিয়েছে, ম্যানচেস্টার অ্যারেনায় আরিয়ানা গ্রান্ডের পরিবেশনা শেষে দর্শক-শ্রোতারা যখন বের হতে শুরু করেছেন, তখনই বিস্ফোরণের ওই ঘটনা ঘটে। এরপর সেখানে আতঙ্কে ছুটোছুটি শুরু হয়ে যায়। ওই ইনডোর স্টেডিয়ামের কাছেই ভিক্টোরিয়া ট্রেন স্টেশন বন্ধ করে দেয়া হয়।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এই বিস্ফোরণের শিকার যারা হয়েছে এবং পুলিশ যেভাবে বলছে, তাতে এটা ভয়ংকর সন্ত্রাসী হামলা বলেই মনে হচ্ছে। এই হামলার পর প্রধানমন্ত্রী তাঁর নির্বাচনী প্রচারাভিযান স্থগিত করেছেন।

লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ম্যানচেস্টারের ঘটনা একটা ভয়াবহ ঘটনা। তিনি এই বিস্ফোরণে আক্রান্তদের সবার প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন এবং যারা সেখানে জরুরি সহায়তা দিচ্ছেন তাদের প্রশংসা করেছেন।

এই কনসার্টে অনেক তরুণ প্রজন্মের ছেলে-মেয়েরা ছিলেন। ছোট বাচ্চাদের নিয়ে অনেক পরিবার ছিল। ম্যানচেস্টার এরিনার কাছেই ভিক্টোরিয়া ট্রেন স্টেশন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।  পুলিশ ওই এলাকা থেকে মানুষজনকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে।

বড় ধরনের কনসার্ট ভেন্যু হিসেবে ইউরোপজুড়ে বেশ জনপ্রিয় এই ম্যানচেস্টার অ্যারিনা। এখানে একসঙ্গে প্রায় ২১ হাজার দর্শনার্থীর ধারণক্ষমতা রয়েছে।

Comments are closed.