নিউজিল্যান্ডকে ২৫৮ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ বৃষ্টির কারণে প্রথম ম্যাচটা পরিত্যক্ত হয়ে যাওয়ায় সিরিজে ঘুরে দাঁড়াতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটাতে যে কোনও মূল্যে জয় চায় বাংলাদেশ।  ‘বাঁচামরার’ এমন ম্যাচে ব্যাট হাতে দারুণ করেছেন ব্যাটসম্যানরা। সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে কিউইদের সামনে ২৫৮ রানের লক্ষ্য রেখেছে বাংলাদেশ।

ম্যাচের শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। কারণ টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় নিউজিল্যান্ড। ইংলিশ কন্ডিশনে শুরুটা বেশ সাবধানের সঙ্গে করেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। প্রথম ৫ ওভারে আসে মাত্র ২৩ রান। সেট হওয়ার পর অবশ্য রানের গতি বাড়াতে থাকেন এই দুজন। ১১তম ওভারে দলীয় স্কোরটা ৫০ পার করে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের স্কোরটা যখন আরো বেশি হৃষ্টপুষ্ট হচ্ছিল ঠিক তখনই ধৈর্য হারিয়ে বসেন তামিম ইকবাল। দলীয় ৭২ রানে নিশামের বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে মুনরোর তালুবন্দি হন তামিম ইকবাল। আউট হওয়ার আগে ৪২ বলে ২৩ রান করেন তিনি। তামিম আউট হলেও অপরপ্রান্তে অবশ্য কিউই বোলারদের হতাশ করেই চলেন সৌম্য সরকার। ৫৩ বলে চারটি চারে অর্ধশতক পূর্ণ করেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান।

তামিমের বিদায়ের খানিকবাদেই ক্লিন বোল্ড হয়ে ফিরে আসেন সাব্বির রহমান। মিচেল স্যান্টনারের দারুণ একটি বলে বোল্ড হয়ে ফিরে আসেন এই ব্যাটসম্যান। মাত্র ১ রান করেন সাব্বির। এরপর সৌম্য সরকার ও মুশফিকের ব্যাটে সেই চাপটা কাটিয়ে ওঠতে থাকে বাংলাদেশ। তবে দলীয় ১১৭ রানে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন সৌম্য সরকার। ৬১ রান করে ইশ সোধির বলে টম ল্যাথামের ক্যাচে প্যাভিলিয়নে ফিরে আসেন সৌম্য।

সৌম্য সরকারের বিদায়ে চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। বিপদটা আরো বাড়িয়ে তোলেন সাকিব আল হাসান। সোধির দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হওয়ার আগে মাত্র ৬ রান করেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। ১৩২ রানে চার উইকেট হারানো টাইগারদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার দায়িত্বটা তুলে নেন মুশফিকুর রহিম। সঙ্গী এবার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এই জুটিতে ক্যারিয়ারের ২৪তম হাফ সেঞ্চুরিটা তুলে নেন মুশি। অন্যদিকে গত ম্যাচে দারুণ ব্যাটিং করা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এই ম্যাচেও তাঁর দুর্দান্ত ফর্মটা ধরে রাখেন।

হাফ সেঞ্চুরির পর আর বেশিদূর এগোতে পারেননি মুশি। নিশামের বলে উইকেটরক্ষককে ক্যাচ দিয়ে ফিরে আসেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৬৬ বলে ৫৫ রান করেন তিনি। মুশফিকের বিদায়ের পর মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে নিয়ে স্কোরের চাকাটা সচল রাখেন মাহমুদউল্লাহ। আজ শুরু থেকেই দারুণ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে ব্যাটিং করতে থাকেন সৈকত। মাহমুদউল্লাহ রয়েসয়ে খেললেও সৈকত খেলে চলেছেন নিজের সুনাম ধরে রেখেই। এই জুটিতে আসে ৬১ রান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৫১ রান করে ফিরে যান। এছাড়া মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত করেন ৪১ রান।

শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৫৭ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় বাংলাদেশ। জিততে হলে কিউইদের করতে হবে ২৫৮ রান। বলাই বাহুল্য, ব্ল্যাক ক্যাপসদের কাজটা মোটেও সহজ হতে দেবেন না মুস্তাফিজ-মাশরাফিরা।

নিষেধাজ্ঞার কারণে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে খেলতে পারেননি মাশরাফি বিন মুর্তজা। আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আবার মাঠে ফিরেছেন বাংলাদেশের নিয়মিত অধিনায়ক। ফলে আজ তাঁর নেতৃত্বেই কিউইদের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের প্রায় পুরো দলটি নিয়েই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। দলে পরিবর্তন আছে শুধু একটি। অধিনায়ক মাশরাফি দলে ফেরায় বাদ পড়েছেন তাসকিন আহমেদ।

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামতে হয়েছিল বাংলাদেশকে। ব্যাট হাতে শুরুটা ভালো না হলেও তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহর লড়াকু ব্যাটিংয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল লাল-সবুজের দল। ৩১ ওভারে সংগ্রহ করেছিল ১৫১ রান। কিন্তু এরপরই বৃষ্টির বাধায় ভেস্তে গিয়েছিল ম্যাচটি। ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে ৫১ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। আর আজ তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে নিউজিল্যান্ড ও বাংলাদেশ।

Comments are closed.