ক্রিকেট বিশ্বে প্রশংসায় ভাসছেন মিসবাহ-ইউনিস

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ পাকিস্তান ক্রিকেটের দুই ব্যাটিং স্তম্ভ- মিসবাহ-উল-হক ও ইউনিস খান। দলটির রঙিন কিংবা সাদা জার্সিতে তাদের আর দেখা যাবে না। কারণ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকেই বিদায় বলে দিয়েছেন মিসবাহ-ইউনিস। এই দুই ব্যাটিং মহিরুহকে মিস করবে পাকিস্তান।

শুধু পাকিস্তানই নয়, গোটা ক্রিকেট বিশ্বই মিস করবে মিসবাহ-ইউনিসকে। ক্রিকেটকে দু’হাত ভরে দিয়েছেন তারা। পাকিস্তান ক্রিকেট যখন খাদের কিনারে। অর্থাৎ লর্ডস টেস্টে দেশটির তিন ক্রিকেটার (সালমান-আসিফ-আমির) ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে পড়লে কোণঠাসা হয়ে পড়ে পাকিস্তান। চরম দুঃসময়ে দলটির দায়িত্ব নেন মিসবাহ। দলকে টেনে তোলেন খাদের কিনার থেকে।

মিসবাহর নেতৃত্বেই প্রথমবারের মতো আইসিসি টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের প্রথম স্থান অধিকার করেছিল পাকিস্তান। সদ্য সমাপ্ত টেস্ট সিরিজে তো আরও একটি ইতিহাস গড়ল তার নেতৃত্বাধীন দলটি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে প্রথমবারের মতো টেস্ট সিরিজ জিতেছে পাকিস্তান। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি মিসবাহর দল জিতে নিয়েছে ২-১ ব্যবধানে। সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ তথা ডোমিনিকায় অনুষ্ঠিত তৃতীয় টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১০১ রানে উড়িয়ে দিয়েছে পাকিস্তান।

জাতীয় দল থেকে অবসর নিলেও ক্রিকেট বিশ্ব ভুলবে না মিসবাহ-ইউনিসের অবদান। নান্দনিক শট, ক্রিকেটীয় আচরণ, নেতৃত্ব গুণ, অসাধারণ কিছু কীর্তি স্মরণীয় করে রাখবে তারকা এই দুই ক্রিকেটারকে। পাকিস্তান ক্রিকেটের সফল দুই ক্রিকেটারে প্রশংসায় পঞ্চমুখ ক্রিকেট বিশ্ব। ক্রিকেটে অসামান্য অবদানের কারণে সাবেক ও কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের বন্দনায় ভাসছেন মিসবাহ-ইউনিস।

এক ভিডি বার্তায় রমিজ রাজা বলেন, ‘দুজনই পাকিস্তান ক্রিকেটে দারুণ অবদান রেখেছে। পাকিস্তান তাদের মিস করবে। তাদের শূন্যতা কখনোই পূরণ হওয়ার নয়! ব্যক্তিগতভাবে মিসবাহ-ইউনিসের উপস্থিতি মিস করব আমি। পাকিস্তান তাদের অবদান সবসময়ই স্মরণ রাখবে।’

ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভনের টুইটবার্তা এমন, ‘ইউনিস খান এবং অধিনায়ক মিসবাহকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তারা অসাধারণ দুজন ক্রিকেটার; ভালো মানুষও।’

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার আকাশ চোপড়া লিখেছেন, ‘পাকিস্তান ক্রিকেটে মিসবাহ-ইউনিস অধ্যায়ের সমাপ্তি হলো। তাদের অভাব পূরণ করা কঠিনই হবে। দ্বিতীয় ইনিংসের জন্য মিসবাহ-ইউনিসকে শুভকামনা রইল!!’

Comments are closed.