ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটার ও প্রার্থীরা এখন ভোট বেঁচাকেনায় ব্যস্ত ! ভোট প্রতি পালসার বাজেট

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্যপদে নীরবে ভোট বেঁচাকেনায় ব্যস্ত ভোটার ও প্রার্থীরা। জনপ্রতিনিধি ভোটারদের চাহিদা সাধারণ জনগণের চেয়ে বেশ উচ্চাভিলাষী।

 

মর্যাদার লড়াইয়ে জিততে ভোটারদের সে চাহিদা পূরণ করা প্রার্থীদের জন্য ‘ওপেন সিক্রেট’। নগদ টাকা, নানা উপহার সামগ্রী গোপনে পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস দেয়া হচ্ছে ভোটারদের কাছে। তবে আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায় এড়াতে প্রার্থীরা এবং সাধারণ জনগণের কাছে প্রকাশের ভয়ে (স্থানীয় জনপ্রতিনিধি) ভোটাররা ভোট কেনা-বেঁচার বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ।

 

ভোটারদের একাধিক সূত্র জানান, নির্বাচন ঘিরে নানা প্রলোভন দেখাচ্ছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রার্থীরা সরাসরি যোগাযোগ করছেন কম। ভোটারদের থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী উপহার সামগ্রী দেয়ার প্রতিশ্রুতিতে এগিয়ে জনশ্রুতিহীন প্রার্থীরা। এদিকে আরেটি তথ্য সুত্রে জানা গেছে, প্রতি ভোটে একটি করে পালসার মটর বাইক দেওয়া হবে।

 

এ বিষয়ে ঝিনাইদহে জেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই প্রার্থী কনক কান্তি দাশ ও হারুন আর রশীদ হারুনের সাথে কথা বললে তারা বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

Comments are closed.