‘নির্বাচনে যেতে চাই, তবে ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে হবে’

ওয়ান নিউজঃ পানিতে তলিয়ে যাওয়া হাওর অঞ্চলগুলোতে সরকারের ত্রাণ তৎপরতা অপ্রতুল ও লোক দেখানো বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, হাওর অঞ্চলগুলোতে হাজার হাজার নারী-পুরুষ ও শিশুদের চিৎকারে আকাশ বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে। সরকার জনগণের প্রতিনিধিত্ব না করার কারণে দুর্গত এলাকাগুলোতে সরকারের কোনো মন্ত্রী বা এমপি এখনো পরিদর্শনে যাননি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, উজান থেকে নেমে আসা পানি ও প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে ৩ লাখ একর জমি ও ১০ লাখ টন ফসল উৎপাদন বিনষ্ট হয়ে গেছে। এতে লাখ লাখ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন।

এমন দুর্ভোগে দুশ্চিন্তায় নেত্রকোনায় ১ জনের আত্মহত্যা ও আরেকজন হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, সব দলকে আগামী নির্বাচনে যাওয়ার জন্য ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আমরা নির্বাচনে যেতে চাই। তবে নির্বাচনের ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে হবে। দলের নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার ও গ্রেফতার হওয়া নেতাদের মুক্তি দিয়েই ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে হবে। সব দল যেন নির্বাচনে অংশ নেয় সেটিও নিশ্চিত করতে হবে। যদি মামলা চলতে থাকে এবং নেতাদের গ্রেফতার অব্যাহত থাকে তাহলে নির্বাচনের ওয়ে আউটটা কী হবে?’

তিনি আরো বলেন, ‘সরকার রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। এ কারণেই সরকার আমাদের নেতাদের বিরুদ্ধে অসংখ্য মামলা দিচ্ছে এবং তাদের গ্রেফতার করছে।’ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘খোলা ময়দানে আসুন, আসুন খোলা ময়দানে এক সঙ্গে খেলি।’

সম্প্রতি কওমি মাদ্রাসার সনদের সরকারি স্বীকৃতি প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা সরকারের মতো ডাবল স্ট্যান্ডার্ড না। পিটিয়ে-পুটিয়ে আমরা পাশে বসায় না। সরকার তাদেরযে স্বীকৃতি দিয়েছে বিএনপি সরকার ২০০৬ সালেই গেজেট প্রকাশ করে সে স্বীকৃতি দেয়েছিল। হেফাজত ইসলামের যেসব দাবি আছে তার মধ্যে কিছু যুক্তিসঙ্গত বলে দাবি করছি। হেফাজতকে বিভিন্নভাবে বশ করে সম্পর্ক গড়ে তুলেছে সরকার।’

আমরাও চাই মাদ্রাসার শিক্ষা আরও আধুনিক হোক এবং ছাত্ররা বর্তমান পৃথিবীর উপযোগী ও ওয়ার্কিং ফোর্স হিসেবে গড়ে উঠুক।’ তিনি বলেন, আমরা গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে রূপ দিতে চাই এবং বিরোধী দল হিসেবে অবদান রাখতে চাই।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি নেতা আতাউর রহমান ঢালী, রুহুল কুদ্দুছ তালুকদার দুলু, ডা. শাখাওয়াত হোসেন জীবন, এমরান সালেহ প্রিন্স ও বিলকিছ জাহান শিরিন প্রমুখ।

Comments are closed.