চিরনিদ্রায় শায়িত লেফটেন্যান্ট কর্নেল আজাদ

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) গোয়েন্দাপ্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বনানী সামরিক কবরস্থানে শুক্রবার বাদ আছর পূর্ণ সামরিক মর্যাদায় তার লাশ দাফন করা হয়। র‍্যাবের গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান এ কথা নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বাদ জুমা ঢাকা সেনানিবাসের কেন্দ্রীয় মসজিদে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বেলা তিনটায় তার মরদেহ উত্তরায় র‍্যাব সদর দফতরে নেওয়া হয়। সেখানে তার দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে লেফটেন্যান্ট কর্নেল আজাদের লাশ বনানী সামরিক কবরস্থানে আনা হয়। জানাজায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, পুলিশের মহাপরিদর্শক শহীদুল হক, র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ ও লে. কর্নেল আজাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

গত শনিবার সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় জঙ্গি আস্তানার কাছে বোমা বিস্ফোরণে গুরুতর আহত হন আবুল কালাম আজাদ। বোমার স্প্লিন্টার তাঁর বাঁ চোখের ভেতর ঢুকে গিয়েছিল। প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাঁর কয়েক দফা অস্ত্রোপচার করা হয়। সেখান থেকে ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নেওয়া হয়। অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় রোববার রাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়। সেখানে তিনি মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ওই হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শে বুধবার রাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে ঢাকায় এনে সিএমএইচের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১২টার পরে সিএমএইচের চিকিৎসকেরা র‍্যাবের গোয়েন্দাপ্রধান আবুল কালাম আজাদকে মৃত ঘোষণা করেন। সেখান থেকে আজ সকালে তাঁর লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজে ময়নাতদন্তের জন্য আনা হয়। সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত লাশের ময়নাতদন্ত করা হয়।

Comments are closed.