কুমিল্লায় ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা

বিশেষ প্রতিনিধিঃ শেষ হলো কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এখন ভোট গণনা ও ফলাফলের অপেক্ষা । বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে।

ভোট চলাকালে সকাল থেকে বড় ধরনের কোনো সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি। তবে কেন্দ্রে গোলযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় ১০৩টি কেন্দ্রের মধ্যে একটিতে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুমিল্লা সরকারি সিটি কলেজ কেন্দ্রে বিএনপির কাউন্সিলর প্রার্থীকে মারধর ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এরপর ওই কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়।

সকালে ভোট গ্রহণ শুরু হওয়ার পর সোয়া ৯টার দিকে কুমিল্লা মডার্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমা। সাড়ে ৯টার দিকে হোচ্ছা মিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে ২৭টি ওয়ার্ড আছে। মোট ভোটার সংখ্যা দুই লাখ সাত হাজার ৫৬৬ জন। এর মধ্যে নারী ভোটারের সংখ্যা বেশি। ওই সিটিতে নারী ভোটারের সংখ্যা এক লাখ পাঁচ হাজার ৪৪৭ জন। পুরুষ ভোটারের সংখ্যা এক লাখ দুই হাজার ১১৯ জন।

নির্বাচনে মেয়র পদে সাবেক মেয়র ও বিএনপির প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু, আওয়ামী লীগের প্রার্থী আঞ্জুম সুলতানা সীমা ছাড়াও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) শিরিন আক্তার ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মামুনুর রশীদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এছাড়া কাউন্সিলর পদে ১১৪ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৪১ জন প্রার্থী ছিলেন।

Comments are closed.