সবার ভোটাধিকার রক্ষার শপথ করালেন আবদুল কাদের মির্জা

ডেস্ক নিউজ:
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই এবং নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা সবার ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে নেতাকর্মীদের লিখিত শপথ বাক্য পাঠ করিয়েছেন। সোমবার (১১ জানুয়ারি) বিকালে পৌরসভার চর হাজারী ফজলুল হক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ আয়োজিত কর্মী সমাবেশে এ শপথনামা পাঠ করান আবদুল কাদের মির্জা।

এর আগে, পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কর্মী সমাবেশেও আবদুল কাদের মির্জা নেতাকর্মীদের শপথবাক্য পাঠ করান।

লিখিত শপথনামায় আবদুল কাদের মির্জা বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার মেয়র পদপ্রার্থী জনাব আবদুল কাদের মির্জাকে আগামী ১৬ জানুয়ারি ২০২১ নির্বাচনে বিজয়ী করার লক্ষ্যে একজন কর্মী হিসেবে, আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব সততা-নিষ্ঠা-ইমানের সহিত পালন করবো। কোনও প্রকার ভোট জালিয়াতির আশ্রয় নেবো না। বল প্রয়োগের মাধ্যমে কোনও ভোটারকে তার ভোটাধিকার হরণ করা থেকে বিরত থাকবো। ভোটের দিন ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত প্রতিটি ভোটকে জীবন বাজি রেখে প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবিলা করবো এবং নিজ দায়িত্ব থেকে কোনও ক্রমেই বিচ্যুত হবো না। দলীয় নির্দেশনা মোতাবেক নেতৃবৃন্দের পরামর্শ ব্যতিরেকে এমন কোনও কর্মে লিপ্ত হবো না যাতে দল ও নৌকা মার্কার প্রার্থীর ক্ষতি হয়। এই নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করে জয়ী হওয়ার জন্য আমরা জীবন উৎসর্গ করার ঘোষণা দিলাম। মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হোন, আমিন।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোম্পানীগঞ্জে আজকে অস্ত্রের ঝনঝনানি চলছে। যেকোনও সময় আমার জীবন বিপন্ন হতে পারে। আমি আপনাদের কবর দেখিয়ে দিয়েছি, আমাকে সেখানে কবর দেবেন। যদি মারা যাই হাশরের ময়দানে দেখা হবে। আমার শেষ কথা হচ্ছে, চামচারা শেখ হাসিনার সব অর্জন ধ্বংস করে দিচ্ছে।’

মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা আরও বলেন, ‘আমি নির্বাচনকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে নিয়েছি। পত্র-পত্রিকাগুলো আমার কথা হুবহু না লিখে এডিট করে বিকৃত করে প্রকাশ করছে। সেগুলো প্রধানমন্ত্রী ও আমাদের মন্ত্রীর নিকট পাঠিয়ে আমার বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তুলছে।’

এ সময় কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শাহাব উদ্দিন, আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী এবং সাধারণ ভোটাররা উপস্থিত ছিলেন।

Comments are closed.