বেনাপোল চেকপোষ্টে পাসপোর্টযাত্রীদের সোনালী ব্যাংকের অব্যবস্থাপনার অভিযোগ

ইয়ানুর রহমান : বেনাপোল চেকপোষ্ট সোনালীব্যাংক বুথে প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মকর্তা কর্মচারী না থাকায় ভারতগামি পাসপোর্ট যাত্রীদের দীর্ঘলাইনে দাঁড়িয়ে ভ্রমন ট্রাক্স নিতে হচ্ছে। আর অতিরিক্ত সময় ক্ষেপন হওয়ায় পাসপোর্টযাত্রীরা রৌদ্রে দাঁড়িয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ছে বলে একাধিক অভিযোগ উঠেছে।

 

ভারতগামি পাসপোর্ট যাত্রী ঢাকার মইনুল ইসলাম, আরমান হোসেন, খুলনার মোমিন উদ্দিন, নিরউপমা রায় অভিযোগ করে বলেন আমরা ইমিগ্রেশন এর স্বচ্ছতায় খুশি। তারা আমাদের পাসপোর্টের কাজ সরাসরি ডেক্সে দাঁড়িয়ে ছবি তুলে ছেড়ে দিচ্ছে পাসপোর্টে সীল মেরে। সেখানে কোন প্রকার সময় ক্ষেপন হচ্ছে না। কিন্তু বেনাপোল সোনালী ব্যাাংকে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে প্রায় ২ ঘন্টা পর ট্যাক্স কাটতে পেরেছি।

 

পাসপোর্ট যাত্রী যশোরের শাহজাহান মিয়া অভিযোগ করে বলেন ইমিগ্রেশন এর দালাল এর উৎপাত না থাকায় তারা সহজে পাসপোর্টের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করতে পারলে ও সোনালী ব্যাংকের কার্যক্রমে তারা মোটে ও সন্তুষ্টি নয়। তিনি বলেন সোনালী ব্যাংকে মাত্র একজন লোক ভ্রমন ট্যাক্স কাটে। তাতে মানুষ হয়রানি হচ্ছে বেশী।

 

সরেজমিনে বেনাপোল চেকপোষ্ট এলাকায় যেয়ে দেখা গেছে কাষ্টমস ভবনের সামনে প্রধান সড়কে প্রায় হাফ কিলো মিটার জুড়ে পড়ে গেছে  ভ্রমন কর কাটতে দির্ঘ লাইন। পাসপোর্টযাত্রীরা রৌদ্রে দাড়িয়ে থেকে ক্লান্ত হওয়ায় তাদের অবস্থা বুঝতে পেরে বেনাপোল বন্দরের পরিচালক আমিনুল ইসলাম সড়ক থেকে ডেকে পোর্টের নিজস্ব আনসার দিয়ে আন্তর্জাতিক প্যাচেঞ্জার টার্মিনালে ছায়া জায়গায় দাঁড়িয়ে লাইনের ব্যবস্থা করে দেওয়ায় যাত্রীরা অনেকটা স্বস্থির নিশ্বাস ফেলেন।

Comments are closed.