শৈলকুপায় বাঁধ ও পাইপ সংস্কারের অভাবে ক্যানেলের বাঁধ ভেঙ্গে আবাদী জমি ও উঠতি ফসল ডুবে যাওয়ার আশংকায় কৃষক

স্টাফ রিপোর্টার,ঝিনাইদহঃ

ঝিনাইদহের শৈলকুপার সারুটিয়া ইউনিয়নের ভুলুন্দিয়া গ্রামে জিকে প্রকল্পের প্রধান সেচ ক্যানেলের বাঁধ ও পানি নিস্কাশনের পাইপ বেশ কয়েক মাস হলো ভেঙ্গে গেছে। এদিকে দু’একদিন ধরে ক্যানেলে নতুন পানি আসতে শুরু হয়েছে।

অতিস্বত্ত¡র বাধ ও পাইপ সংস্কার করা না হলে পার্শবর্তী মাঠের উঠতি আবাদী ফসলের ক্ষেত ক্যানেলের পানিতে ডুবে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

জানা গেছে, গত বছরও সেচ ক্যানেলের বাঁধ ভেঙ্গে আবাদী জমিতে পানি ঢুকে প্লাবিত হয়। এতে আশপাশ এলাকার ৪০-৫০ জন কৃষকের বেশ কয়েক একর জমির উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। সেই সাথে পার্শ্ববর্তী বসতীদের বাড়ী-ঘর তলিয়ে যায়। তাই অতি দ্রুত বাঁধ ও পানি নিস্কাশনের পাইপ মেরামতের দাবী জানিয়েছে স্থানীয় কৃষক ও আশপাশের বসতীরা।

 

সারুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, বুধবার বিকেলে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। বাঁধ সংস্কার করা জরুরী হয়ে পড়েছে। শুধু ভুলুন্দিয়া নয় সারুটিয়া ইউনিয়নের কয়েকটি স্থানে বাঁধ ভাঙ্গার উপক্রম দেখা গেছে।

 

শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ উসমান গনি জানান, বাঁধ ভাঙ্গার ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। জিকে কলোনীর কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবগত করে অতিস্বত্ত¡র ব্যাবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Comments are closed.