নিউইয়র্কের প্রথম ও একমাত্র কৃষ্ণাঙ্গ মেয়রের মৃত্যু

ডেস্ক নিউজ:
যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের প্রথম ও একমাত্র কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র ডেভিড ডিনকিন্স মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৯৩। বার্ধক্যজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে নিউইয়র্ক ‍পুলিশ।

১৯২৭ সালে নিউ জার্সিতে জন্মগ্রহণ করেন ডেভিড ডিসকিন্স। পরে হাওয়ার্ড ইউনিভার্সিটি ও ব্রুকলিন ল স্কুল থেকে লেখাপড়া শেষ করেন। ১৯৯০ থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত নিউইয়র্কের মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

সোমবার (২৩ নভেম্বর) রাতে টুইটারে তার উত্তরসূরি রুডি জুলিয়ানি তাকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। সেই সঙ্গে নগরের সেবায় ডিনকিন্স যে অসামান্য অবদান রেখেছেন তা উল্লেখ করেছেন।

ডেভিড ডিনকিন্স রাজনীতিতে আসার আগে নিউইয়র্ক সিটিতে প্রথমে জেলা নেতা হিসেবে এবং পরে হারলেম রাজ্য বিধানসভা সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। রাজনৈতিক উত্থান তাকে নির্বাচন বোর্ডের সভাপতি থেকে সিটি ক্লার্ক এবং ম্যানহাটন বোরোর রাষ্ট্রপতির কাছে নিয়ে গিয়েছিল। ডিনকিন্স ১৯৯০ সালের নিউইয়র্ক সিটির নির্বাচনে সংকীর্ণ ব্যবধানে রুডলফ জুলিয়ানিকে পরাজিত করেছিলেন।

উদ্বোধনী ভাষণ চলাকালীন ডিনকিন্স নিউইয়র্কের সমস্ত মানুষের মেয়র হওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন এবং ঘোষণা দিয়ে বলেছিলেন, ‘আমরা সকলেই স্বাধীনতার পদযাত্রায় পথপ্রদর্শক।’ বক্তৃতায় তিনি নিপীড়ন, মানবাধিকার এবং সমতার প্রয়োজনীয়তার বিষয়েও কথা বলেন।

সাবেক এই মেয়র দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বর্ণবাদবিরোধী নিষেধাজ্ঞাগুলোকে সমর্থন করেছিলেন। তিনি ১৯৯৩ সালে পুনর্নির্বাচনার জন্য দৌঁড়েছিলেন। তবে জুলিয়ানির কাছে পরাজিত হন।

মৃত্যুর আগে ডিনকিন্স নিউইয়র্ক সিটির রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। একটি সাপ্তাহিক রেডিও শো হোস্ট করতেন এবং কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে জনসাধারণের বিষয়ে শিক্ষকতা করতেন।

Comments are closed.