সেই খুকির পাশে তোফায়েল

নিজস্ব প্রতিবেদক:
নিজের সম্পদ নিঃস্বদের মাঝে বিলিয়ে দিয়ে, রাজশাহীর দিল আফরোজ খুকি সংগ্রামের জীবন বেছে নিয়েছিলেন। ৩০ বছর ধরে তিনি শহরের পথে হেঁটে বিক্রি করছেন দৈনিক খবরের কাগজ। বয়স ষাটের কোঠায় পৌঁছে গেলেও তিনি এখনো সংবাদপত্র বিক্রি করেই সমাজসেবা চালিয়ে যাচ্ছেন।
খবরের কাগজ বিক্রি করে প্রতিদিন ৩০০ টাকা আয় করেন খুকি। নিজের জন্য ব্যয় করেন ৪০ টাকা। হজে যাওয়ার জন্য ১০০ টাকা ব্যাংকে জমা করে বাকি ১৬০ টাকার মধ্যে ১০০ টাকা এতিমখানায়, ৫০ টাকা মসজিদ-মন্দিরে এবং ১০ টাকা ফকির মিসকিনের মাঝে বিতরণ করেন।
সম্প্রতি গণমাধ্যমে সংবাদ শিরোনাম হওয়া রাজশাহীর একমাত্র নারী সংবাদপত্র বিক্রেতা দিল আফরোজ খুকির সঙ্গে দেখা করতে উদগ্রীব ছিলেন ট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) সভাপতি ও বে-অববেঙ্গল ট্যুরিজমের স্বত্ত্বাধিকারী তোফায়েল আহমেদ।
অবশেষে সোমবার (২৩ নভেম্বর) আলোচিত এই নারী হকারের ঝুঁপড়ি বাসায় যান। শারীরিক খোঁজখবর নেন। অবস্থা দেখে খুবই মর্মাহত হন তোফায়েল। এ সময় তিনি খুকির হাতে নগদ ১ লক্ষ টাকা অনুদান প্রদান করেন।
এ প্রসঙ্গে তোফায়েল আহমদ বলেন, ‘সেদিন কথা দিয়েছিলাম রাজশাহীর দিল আফরোজ খুকি আপার সাথে দেখা করবো। শত ব্যস্ততার মাঝেও অবশেষে রাজশাহী এসে খুকি আপার সাথে তার নিজ বাড়িতে দেখা করলাম। কথা দিয়েছি, কথা রেখেছি।’
নিজের সন্তুষ্টির কথা জানিয়ে টুয়াক সভাপতি বলেন, ‘হজ করার জন্য খুকি আপার হাতে ১ লক্ষ টাকার অনুদান তুলে দিতে পেরে আমি নিজেই স্বাচ্ছন্দবোধ করছি। সবাই খুকি আপার সুস্থতা ও দীর্ঘায়ুর জন্য দোয়া করবেন।’ তিনি বলেন, ’সবাই যার যার বাড়ির আশেপাশে ও যার যার এলাকায় এমন খুকি আপারা থাকলে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অনুরোধ রইলো।’

Comments are closed.