বঙ্গবন্ধু খুনের নেপথ্য নায়কদের খুঁজতে কমিশন হচ্ছে: সংসদে আইনমন্ত্রী

ডেস্ক নিউজ:
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার নেপথ্য নায়কদের খুঁজে বের করতে কমিশন গঠন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। কমিশন গঠনের প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা চলছে বলেও তিনি জানান।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে সংরক্ষিত আসনের মনিরা সুলতানার প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

ওই সংসদ সদস্যের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর খুনের সঙ্গে জড়িত দেশি-বিদেশি চক্রান্তকারী নেপথ্য নায়কদের খুঁজে বের করতে কমিশন গঠন করা হবে। ইতোমধ্যে কমিশন গঠনের প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে—কমিশন কাদের নিয়ে কীভাবে গঠিত হবে। কমিশনের কাজের পরিধি কী হবে ইত্যাদি নির্ধারণে সংশ্লিষ্টরা কাজ করে যাচ্ছেন।’

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার রায়ের প্রসঙ্গ টেনে আনিসুল হক বলেন, ‘সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে প্রচলিত আইনে এবং প্রচলিত আদালতেই হত্যাকারীদের বিচারের ব্যবস্থা করা হয়। বিচার প্রক্রিয়া শেষ করে হত্যাকারীদের সাজা ইতোমধ্যে কার্যকর করা হয়েছে। তবে এখনও যেসব খুনি বিভিন্ন দেশে পালিয়ে এবং আশ্রয় গ্রহণ করে আছে, তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার সব প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।’

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার বিচারপ্রার্থী জনগণের ভোগান্তি লাঘবে সঠিক বিচারের নিশ্চয়তা প্রদান করে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ধনী ও গরিব নির্বিশেষে সবার জন্য সমতার ভিত্তিতে সুবিচার নিশ্চিত করা এবং বিচার ব্যবস্থায় দৃশ্যমান উন্নয়ন সাধন করে সমাজে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় সরকার বদ্ধপরিকর।’

৭৫ হাজার জনবল নিয়োগের সুপারিশ পিএসসির
বর্তমান সরকারের আমলে সরকারি কর্মকমিশন (বিপিএসসি) বিসিএস ক্যাডার পদসহ দ্বিতীয় ও তদূর্ধ্ব শ্রেণিতে মোট ৭৪ হাজার ৮৭৮ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছে। ভোলা-২ আসনের আলী আজমের এ সম্পর্কিত প্রশ্নের জবাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফারহাদ হোসেন বলেন, ‘বর্তমান সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে এখন পর্যন্ত ২৮তম থেকে ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষায় ৩৫ হাজার ৬০৩ জন প্রার্থীকে ক্যাডার পদে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে চার হাজার ২৫ জন, দ্বিতীয় শ্রেণির (দশম, একাদশ ও দ্বাদশ গ্রেড) পদে ৫ হাজার ৭৫৪ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছে। এছাড়াও বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে নবম তদূর্ধ্ব এবং দশম গ্রেডের বিভিন্ন নন-ক্যাডার পদে ৩২ হাজার ৪৯৬ জনকে নিয়োগের সুপারিশ করেছে।

ঢাকা চিড়িয়াখানায় মোট প্রাণী ২৭২২টি
সরকারি দলের এ কে এম রহমতুল্লাহর প্রশ্নের জবাবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম জানান, বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানায় বর্তমানে ১৩৩ প্রজাতির প্রাণী, পাখি ও দৃষ্টিনন্দন অ্যাক্যুরিয়াম ফিশ রয়েছে। এর মোট সংখ্যা দুই হাজার ৭২২টি।

মন্ত্রীর তথ্যমতে, চিড়িয়াখানায় ১৭ প্রজাতির ৩৮২টি বৃহৎ প্রাণী (তৃণভোজী), ১১ প্রজাতির ৩৬টি মাংশাসী, ১৩ প্রজাতির ১৫২টি ক্ষুদ্র স্তন্যপায়ী, ৯ প্রজাতির ৬৯টি সরীসৃপ প্রাণী, ৫৭ প্রজাতির ১১৩৭টি পাখি এবং ২৬ প্রজাতির ৯৪৬টি অ্যাকুরিয়াম ফিশ রয়েছে।

Comments are closed.