আইসিসি চেয়ারম্যান পদ থেকে শশাঙ্ক মনোহরের পদত্যাগ

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসির সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী ছিলেন তিনি। চেয়েছিলেন ক্রিকেটের বিশ্ব সংস্থায় বড় ধরনের পরিবর্তন আনতে। কিন্তু পড়েছেন বাধার মুখে। সেসব কারণেই কি না কে জানে মাত্র আট মাস দায়িত্ব পালন করেই আইসিসির চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করলেন শশাঙ্ক মনোহর। ভারতের বোর্ড প্রেসিডেন্ট পদ ছেড়ে গিয়েছিলেন আইসিসির চেয়ারম্যান হয়ে। ‘বিগ থ্রি’ ফর্মুলা ভেঙে দিয়েছেন প্রথম সুযোগেই। কিন্তু আইসিসির প্রথম স্বাধীন চেয়ারম্যান মনোহর দুই বছরের মেয়াদ পুরো করার অনেক আগেই সরে গেলেন। বুধবার দুপুরে জানা গেল পদত্যাগের খবরটা।

মনোহর গত বছরের মে মাসে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আইসিসির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড – বিশ্ব ক্রিকেট চালানোর জন্য এই তিন বোর্ড নিজেদের মধ্যে সমঝোতায় এক ‘বিগ থ্রি’ গড়ে তুলেছিল। মনোহরের চেষ্টায় সেটা ভেঙেছে। কিন্তু যাদের ক্ষমতা খর্ব করেছেন তারা খুশি হতে পারেনি। এমনকি ভারতীয় বোর্ডও তার বিরুদ্ধে চলে যায়।

এই বছরের ফেব্রুয়ারিতে আইসিসি নতুন গঠণতন্ত্র অনুমোদন করে। তাতে ২০১৪ সাল থেকে ‘বিগ থ্রি’র চালিয়ে আসা ক্ষমতা কেড়ে নেওয়া হয়। যদিও আগামী এপ্রিলে বোর্ডের পরের বৈঠকে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হওয়ার কথা। কিন্তু হঠাৎ পদত্যাগ করায় সেই বৈঠকে তো আর মনোহর থাকবেন না। বিগ থ্রি শুধু ক্ষমতায় এগিয়ে ছিল তাই নয়, তারা বিশ্ব ক্রিকেটের অর্থনীতির বাজারটাও নিয়ন্ত্রণ করতে শুরু করেছিল। এই তিনের ওপর দিনে দিনে নির্ভরশীল হয়ে উঠছিল আইসিসির বাকি সদস্যদের ভাগ্য।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডেভিড রিচার্ডসনকে আনুষ্ঠানিক এক চিঠিতে নিজের পদত্যাগের কথা জানিয়েছেন মনোহর, ‘আমি আমার সেরাটা করতে চেয়েছি। সব সদস্যকে নিয়ে নিরপেক্ষভাবে কাজ চালানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু ব্যক্তিগত কারণে আমার পক্ষে আইসিসির চেয়ারম্যানের পদে আর থাকা সম্ভব হচ্ছে না। চেয়ারম্যানের পদ থেকে আমি পদত্যাগ করছি। আইসিসি ভবিষ্যতে আরো এগিয়ে যাক সেই কামনা করছি।’

মনোহর সরে যাওয়ায় আইসিসির নির্বাহী বোর্ডকে আগামী ২৪ এপ্রিলের বৈঠকে নতুন চেয়ারম্যান নির্বাচন করতে হবে। পূর্ণ সদস্য কোনো দেশের বোর্ডের মনোনিত প্রার্থী হতে হবে আইসিসির চেয়ারম্যান হতে। তবে নিজের বোর্ডের কোনো পদে সেই ব্যক্তি থাকতে পারবেন না। তবে এটা পরিস্কার না যে আইসিসি নির্বাচন করবে চেয়ারম্যান পদের জন্য নাকি বেছে নেবে মনোহরের জায়গায় অন্য কাউকে।

Comments are closed.