রোহিঙ্গাদের কাছে নির্যাতনের বর্ণনা শুনছে কফি আনান কমিশন

ওয়ান নিউজ ডেক্স: মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের অবস্থা সরেজমিনে দেখতে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালি নতুন রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শণ করছেন কফি আনান কমিশনের তিন সদস্য। এ সময় তারা রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে নির্যাতনের বর্ণনা শুনছেন। রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তারা এ পরিদর্শন আসেন।

এ সময় কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন, আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইএমও), জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন (ইউএনএইচসিআর) ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।.কফি আনান কমিশনের সসদ্যরাগত শনিবার কফি আনান কমিশনের তিন সদস্য ঢাকায় পৌঁছান। কমিশনের সদস্যরা হলেন- মিয়ানমার নাগরিক উইন ম্রা ও আই লুইন এবং লেবাননের নাগরিক ঘাসান সালামে।পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতিনিধি দলটির সদস্যরা রবি ও সোমবার কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন এবং স্থানীয় প্রশাসন, জাতিসংঘ ও অন্যান্য বিদেশি সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবেন।

.

টেকনাফের হ্ণীলা অনিবন্ধিত শিবিরে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারাপররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আগামী বুধবার ঢাকা ত্যাগ করার আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রতিনিধি দলটির সদস্যরা। এছাড়া বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ এ তারা একটি মতবিনিময় সভাতেও অংশ নেবেন।তিনি আরও বলেন, প্রতিনিধি দলটি ফিরে গিয়ে একটি মূল্যায়ন প্রতিবেদন দাখিল করবে। আশা করা হচ্ছে, সেটা কফি আনান কমিশনের মূল রিপোর্টের অংশ হবে। এ কমিশনের ম্যান্ডেট অনুযায়ী তারা ২০১৭ সালের দ্বিতীয়ার্ধে রিপোর্ট প্রকাশ করবে।

.কফি আনান কমিশনের সসদ্যরাপ্রসঙ্গত, গত ৯ অক্টোবর বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সে দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর বেশ কয়েকটি নিরাপত্তা চৌকিতে হামলা হয়। এতে সীমান্ত পুলিশের ১২ সদস্য নিহত হয়। এই হামলার জন্য রোহিঙ্গা মুসলমানদের দায়ী করে তাদের ওপর নির্যাতন চালায় মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী। তাদের নির্যাতনে শতাধিক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, প্রায় ৭০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে।সুত্র: বাংলা ট্রিবিউন

Comments are closed.