সব দলের কাছে ৫টি করে নাম চেয়েছে সার্চ কমিটি

ওয়ান নিউজঃ নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে অংশ নেয়া রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে পাঁচটি করে নাম চেয়েছে নবগঠিত সার্চ কমিটি। আগামী মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) বেলা ১১টার মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব বরাবর তাদের পছন্দের নাম জমা দেয়ার কথা বলা হয়েছে।

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) সার্চ কমিটির বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম গণমাধ্যমকর্মীদের এ তথ্য জানান। বৈঠকে মোট ৩১টি রাজনৈতিক দলের কাছে পাঁচটি করে নাম চাওয়া হয়েছে।

শফিউল আলম জানান, আজ শনিবার অনুসন্ধান কমিটির কর্মপদ্ধতি কী হবে তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এছাড়া নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য মতবিনিময় করতে ১২ বিশিষ্ট নাগরিককেও ডাকা হয়েছে।

তারা হলেন- বিচারপতি মো. আবদুর রশিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এ কে আজাদ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এস এম এ ফায়েজ, মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) এ টি এম শামসুল হুদা, সাবেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) এম সাখাওয়াত হোসেন, সাবেক নির্বাচন কমিশনার ছহুল হোসাইন, স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ তোফায়েল আহমেদ, সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজনের সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, শিক্ষাবিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সংখ্যাতিরিক্ত অধ্যাপক আবুল কাশেম ফজলুল হক, সাবেক পুলিশের (আইজিপি) মহাপরিদর্শক নুরুল হুদা। আগামী সোমবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় তারা সার্চ কমিটির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন।

এর আগে, শনিবার বেলা ১১টার দিকে সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে কমিটির ছয় সদস্যের উপস্থিতিতে সার্চ কমিটির বৈঠক শুরু হয়। আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে সার্চ কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, সরকারি কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক, বাংলাদেশের মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক (সিএজি) মাসুদ আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য শিরীণ আখতার।

উল্লেখ্য, গত ২৫ জানুয়ারি নতুন ইসি গঠন করতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের সার্চ কমিটি গঠন করেন। গঠিত হওয়ার দিন থেকে ১০ কার্যদিবস, অর্থাৎ আগামী ৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে অনুসন্ধান কমিটিকে ইসির জন্য ব্যক্তিদের নাম সুপারিশ করতে হবে।

Comments are closed.