জঙ্গিবাদকে কচুরিপানার মতো তুলে ফেলতে হবে : তথ্যমন্ত্রী

ইয়ানুর রহমান : যশোরে পুষ্পমেলা, চিত্র প্রদর্শনী ও পিঠাপুলি উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, জঙ্গিবাদ হচ্ছে কচুরিপানার মতো। ওদের শেকড় নাই। ওরা ভেসে বেড়ায়। দু’দিনের জন্য আসে। কচুরিপানার ফুল আপনি কোনো দিন তুলে এনে ঘরের ফুলদানিতে রাখেন না। প্রেমিক কচুরিপানার ফুল প্রেমিকার চুলের খোপায় বেঁধে রাখেন না। জঙ্গিবাদ সাময়িক উৎপাত। তাই কচুরিপানার মতো একে তুলে ফেলতে হবে।

বুধবার সন্ধ্যায় জেলা পরিষদ চত্বরে চাঁদেরহাট যশোর আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, আমাদের ৭টি উৎসব আছে। এগুলো হলো, দু’টি ঈদ, দুর্গোৎসব, পহেলা বৈশাখ, মহান একুশে, বিজয় দিবস ও স্বাধীনতা দিবস। এগুলো আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্যের অংশ। এই উৎসবগুলোতে আমাদের মাটির গন্ধ আছে। গোটা দেশ একযোগে এইসব উৎসব উদ্যাপন করেন। তেতুল হুজুর বা কাঠমোল্লারা এই উৎসব
নিয়ে যতই বাজে কথা বা বিকৃত করুক তা জনগণ আমলে নেয় না। এ উৎসবগুলো বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে। তাই এই দেশে কখনই জঙ্গিবাদ শিকড় গাড়তে পারবে না।

তথ্যমন্ত্রী সাংস্কৃতিক চর্চা ও গ্রামীণ লোকজ সংস্কৃতিকে তুলে ধরার আহবান জানিয়ে বলেন, জঙ্গিদের বোমার ভয়ে অনুষ্ঠান বন্ধ করলে তো ওরা জিতে গেল। কিন্তু ওদের জিততে দেয়া যাবে না। সংস্কৃতি চর্চা না থাকলে রাজনীতিবিদরা বিজয়ী হয়েও হোঁচট খাবে। তাই কবিতা, নাচ, গান, ছবি ও ভাস্কর্য নির্মাণ, ছবি আঁকা বন্ধ না করার জোর আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চাঁদের হাট যশোরের সভাপতি ও জাসদের কার্যকরী সভাপতি অ্যাডভোকেট রবিউল আলম। চাঁদের হাট যশোরের সাধারণ সম্পাদক আহমেদ সাঈদ বুলবুলের পরিচালনা স্বাগত বক্তব্য রাখেন পুষ্পমেলা, চিত্র প্রদর্শনী ও পিঠুপুলি উৎসব উদযাপন পরিষদের আহবায়ক মবিনুল ইসলাম মবিন। বক্তব্য
রাখেন- জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর ও জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ কবীর।

অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী এসএম নুরুল ইসলাম তথ্যমন্ত্রীকে শতবর্ষী স্মারক গ্রন্থ উপহার দেন। পরে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু যশোর প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন।

Comments are closed.