ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর থানার ওসি প্রত্যাহার

ওয়ান নিউজ ডেক্স: ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর থানার অফিসার-ইন-চার্জকে প্রতাহার করেছে ইসি।

বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) এ বিষয়ে একটি নির্দেশনা দেন ইসি।

প্রসঙ্গত, এর আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর ও বিজয়নগর) আসনে বিএনপির প্রার্থী খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামলের ব্যক্তিগত গাড়িতে উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ ওঠে। রোববার (১৬ ডিসেম্বর) বেলা সোয়া ১১টার দিকে বিজয়নগর উপজেলার মির্জাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সে সময় বিজয়নগর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফয়জুন্নাহার টুনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমরা বিজয় মিছিল করছিলাম। সে সময় একটা গাড়ি আমাদের মিছিলের ভেতরে প্রবেশ করে। এটা বিএনপির প্রার্থী নাকি অন্য কারও গাড়ি ছিল, তা জানি না। গাড়ি ভাঙচুর হয়েছে কিনা তা জানি না। তবে ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতা-কর্মী কোনো হামলা করেনি।’

বিএনপির প্রার্থী কেন্দ্রীয় বিএনপির অর্থনীতি বিষয়ক সম্পাদক খালেদ হোসেন মাহবুব অভিযোগ করে বলেন, ‘পুলিশের সামনেই যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা আমার ব্যক্তিগত গাড়িতে (প্রাডো) হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে। নেতা-কর্মীরাও আহত হয়েছে। পুলিশ কিছুই করেনি। ’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন বলেন, ‘বিভিন্নজন বিভিন্ন কথা বলেছে। বিষয়টি শুনেছি। আওয়ামী লীগের লোকজন বিজয় মিছিল করছিল বলে শুনেছি। তবে বিএনপির প্রার্থীর গাড়ি ভাঙচুরের বিষয়টি তদন্ত করছে পুলিশ।’

ওই দিন রাত পৌনে নয়টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন জেলা বিএনপির নেতা-কর্মীরা। তাঁরা হামলার শিকার গাড়িটি সাংবাদিকদের দেখাতে প্রেসক্লাবে নিয়ে আসেন। সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক খোকন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। লিখিত বক্তব্যে জহিরুল হক অভিযোগ করে বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে থেকে বিভিন্ন ধরনের ‘গায়েবি’ মামলা দেওয়া হচ্ছে। এসব মামলায় বিএনপির নেতা-কর্মীদের হয়রানি ও গ্রেফতার করা হচ্ছে। নেতা-কর্মীদের বাড়িতে গিয়ে কিছু অতি উৎসাহী পুলিশ সদস্য হুমকি দিয়ে আসছেন।

উল্লেখ্য, বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) ইসির পক্ষে রাজধানীর রমনা, নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি ও ঠাকুরগাঁও সদরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Comments are closed.