নির্বাচনী ঘটনায় ভূট্টো ও মাবুদ চেয়ারম্যান সহ ৮০ জনকে আসামী করে দু’টি মামলা

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার-৩ আসনের রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের ধেচুয়াপালং এর রাবেতা হাসপাতালের সামনে রাস্তার উপর গত ১২ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৭টায় সংঘটিত ঘটনায় খুনিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মাবুদ ও সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল গনি সওদাগর সহ ৪৩ জনকে এজাহারভূক্ত আসামী ও ১৫ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

খুনিয়াপালং ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি এস.এম.ফরিদুল আলম বাদী হয়ে রামু সি.আর আমলী কোর্টের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ দেলোয়ার হোসেনের আদালতে ১৮ ডিসেম্বর মঙ্গলবার মামলাটি দায়ের করেন।

আবার গত ১০ ডিসেম্বর দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের পানেরছড়া নুরুল আলম সওদাগরের মুদির দোকানের সামনে সন্ধ্যা ৭টায় সংঘটিত ঘটনায় রামু উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আনছারুল হক বাদী একই আদালতে পৃথক আর একটি মামলা দায়ের করছেন।

এই মামলায় দক্ষিণ মিঠাছড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইউনুস ভূট্টোকে এক নম্বর আসামী ও তাঁর ভাই সরওয়ার কামাল কে দুই নম্বর আসামী করে ৭ জন এজাহারভূক্ত ও ১৫ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে এ মামলাটি দায়ের করা হয়।

দন্ডবিধি-১৪৩, ৩২৩, ৩২৫, ৩২৬, ৩০৭, ৪৩৫, ৪৩৬, ৩৭৯, ৫০৬(২) ধারা মূলে মামলা দু’টি দায়ের করা হয়েছে। আদালত মামলা দু’টি আমলে নিয়ে রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য আদেশ দেয়া হয়েছে।

মামলা দায়েরকালে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট মোহাম্মদ ছৈয়দ আলম, এডভোকেট মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, এডভোকেট ফিরোজুল আলম, এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী প্রমুখ আদালতে শুনানী করেন।

দায়েরকৃত মামলা দু’টির নং- ৩৪৯/২০১৮ ও ৩৫০/২০১৮ বলে আদালত নং-০১ এর বেন্ঞ্চ সহকারী আবদুর রহিম নিশ্চিত করেছেন।

Comments are closed.