একদিনের রিমান্ডে আরাফাত সানি

ওয়ান নিউজঃ ‘যা হওয়ার হয়েছে, এখন আর কোনো চিন্তা করি না।’ রোববার পুরান ঢাকার নিম্ন আদালতে রিমান্ডের শুনানি চলাকালীন এক পুলিশ কর্মকর্তাকে একথা বলেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার আরাফাত সানি।

শনিবার রাতে নাসরিন সুলতানার দায়ের করা তথ্য-প্রযুক্তি আইনে মামলায় সাভার থেকে সানিকে গ্রেফতার করে মোহাম্মদপুর থানায় আনা হয়। রোববার পাঁচদিনের রিমান্ড চেয়ে সিএমএম আদালতে আবেদন করে পুলিশ।

তবে আদালতে স্বাভাবিক দেখা যায় সানিকে। তার মধ্যে কোনো চিন্তা কিংবা ভীতি দেখা যায়নি। আদালতে উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তাকে সানি বলেন, ‘যা হওয়ার হয়েছে, এখন আদালতের মাধ্যমেই সব সুরাহা হবে।’

গত ৫ জানুয়ারি নাসরিন সুলতানা নামে এক তরুণী সানির বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। মামলার এজাহারে তিনি দাবি করেন, পরিবারের অসম্মতি থাকা সত্ত্বেও তারা নিজেদের সিদ্ধান্তে বিয়ে করেন। তবে দীর্ঘদিন ধরে ঘরে তুলে নেয়ার কথা বললেও সানি তাকে ঘরে তুলে নিয়ে স্ত্রীর স্বীকৃতি দিচ্ছিলেন না। বরং বিয়ের পর তাদের মধ্যে ঘটে যাওয়া কিছু অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ফেসবুকে পাঠিয়ে তাকে ব্ল্যাকমেইলের চেষ্টা করছিলেন।

নাসরিনের মামলায় রোববার সানিকে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

এ বিষয়ে রোববার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে তেজগাঁও বিভাগের ডিসি বিপ্লব কুমার সরকার জানান, পুলিশ ৫ জানুয়ারি মামলার পর তদন্ত শুরু করে। প্রাথমিক তদন্তে সানির সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ মিলেছে।

এদিকে সানি যে মোবাইল হ্যান্ডসেটের মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহার করে নাসরিনের ছবি পাঠিয়েছিলেন সেটি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) কাছে দেয়া হয়েছে। তারা হ্যান্ডসেটটি যাচাই-বাছাই করছেন।

Comments are closed.