মাদার অব হিউম্যানিটি পদকের খসড়া অনুমোদন

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের কল্যাণে কাজ করা পাঁচ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে প্রতি বছর ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক’ দেয়া হবে।

সচিবালয়ে সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক নীতিমালা-২০১৮’ খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে এক সংবাদ সম্মেলনে সভার সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, পদক পাওয়া প্রত্যেক ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ১৮ ক্যারেটের ২৫ গ্রাম ওজনের একটি স্বর্ণপদক ও ২ লাখ টাকার চেক দেয়া হবে। প্রতি বছর ২ জানুয়ারি ‘জাতীয় সমাজসেবা দিবস’ অনুষ্ঠানে এ পদক দেয়া হবে। নির্ধারিত বাছাই কমিটির মাধ্যমে পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে নির্বাচন করা হবে।

পদক কোন শ্রেণির পদক হবে, জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এটা স্বাধীনতা ও ২১ পদকের সমমানের হবে।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১৪ আগস্ট ‘শেখ হাসিনা মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক’-এর নীতিমালা অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে প্রস্তাব পাঠানো হয়। পদক প্রদানের খসড়া নীতিমালায় বলা হয়েছে, বয়স্কা, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলাদের কল্যাণ ও পুনর্বাসনে অবদান রাখলে পদক পাওয়ার যোগ্য বিবেচিত হবেন।

এছাড়া প্রান্তিক, অনগ্রসর ও সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর সামাজিক সুরক্ষা, আত্মনির্ভরশীলকরণ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অবদান রাখলেও পদক পেতে পারে যে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান।

খসড়া নীতিমালায় বলা হয়েছে, প্রতিটি পদক ১৮ ক্যারেট মানের ২৫ গ্রাম স্বর্ণ দিয়ে নির্মিত হবে। থাকবে ‘শেখ হাসিনা মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক’-এর একটি রেপ্লিকা।

Comments are closed.