তারার মেলায় সালমা

ওয়ান নিউজ বিনোদন ডেক্সঃ ক্লোজআপ ওয়ান খ্যাত কণ্ঠশিল্পী মৌসুমী আক্তার সালমার সঙ্গীত ক্যারিয়ারের দশ বছর পূর্তি হয়েছে। এই বিষয়টি উপলদ্ধি করার পাশাপাশি শিল্পীর জন্মদিন উপলক্ষে তারার এক মেলা বসেছিলো রাজধানীর গুলশানের একটি অভিজাত রেস্তোরাঁয়। গত ১৫ জানুয়ারির এই অনুষ্ঠানে সালমাকে শুভেচ্ছা জানাতে সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন শোবিজ অঙ্গনের অনেকেই। অনুষ্ঠানের শুরুতেই শিল্পীকে দোয়া করেন তারই গুরু শফি ম-ল। এরপর কিংবদন্তি সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। অনুষ্ঠান শুরু হয় রাত ৮ টায়। সালমা হাসিমুখে আমন্ত্রিত অতিথিদের একে একে বরণ করে নেন। এতে উপস্থিত ছিলেন চিত্রনায়ক রিয়াজ, ফেরদৌস, নায়িকা নিপুন, মিশা সওদাগর, বিদ্যা সিনহা মিম, পার্থ বড়–য়া, উপস্থাপক আনজাম মাসুদ, দেবাশীষ বিশ্বাস, অভিনেত্রী আরজুমান্দ আরা বকুল, কন্ঠশিল্পী সাব্বির, মুহিন, বেলাল খান, মেহরাব, ইলিয়াস হোসেন’সহ আরো অনেকে। রিয়াজ বলেন, ‘সালমার কন্ঠটি ইউনিক এক কন্ঠ। তার গান শুনে মুগ্ধ হই সবসময়। আমার অনেক অনেক শুভ কামনা থাকবে যে আগামীদিনগুলোতেও সালমা যেন আরো ভালো ভালো সুরেলা গান শ্রোতাদের উপহার দিতে পারেন।’ রিয়াজের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে নিপুণ বলেন, ‘এদেশের একজন গুণী সঙ্গীতশিল্পী সালমা। আমার ছোট বোনেরই মতো সে। তার গান আমার যেমন ভালো লাগে, তেমনি তার ব্যবহারও আমাকে মুগ্ধ করে। তার এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পেরে ভালো লেগেছে। তার জন্য সবসময়ই আমার শুভ কামনা।’ বিদ্যা সিন্হা মিম বলেন, ‘খুব মুগ্ধ করার মতো একটি কন্ঠ সালমার। তার গান শুনলেই মুগ্ধ হই। ধন্যবাদ দিতে চাই সালমা আপুকে আমাকে এমন একটি অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণ করার জন্য।’ সালমার গুরু শফি ম-ল বলেন, ‘এটা আমার অনেক গর্বের বিষয় যে, আমারই শিষ্যকে আজ সারা দেশ এক নামেই চিনছে। তার গান শুনে শ্রোতারা যখন মুগ্ধ হন, তখন গর্বে সত্যিই আমার বুকটা ভরে যায়। সালমাকে আমি খুব স্নেহ করি। আমার বিশ্বাস আগামী দিনে সে আরও অনেক দূর যাবে, কারণ তার মাঝে সেই চেষ্টাটা ছিলো, আছে এবং থাকবে।’ রাত ৯টা ৩০ মিনিটে আমন্ত্রিত অতিথিদের নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটেন সালমা। অনুষ্ঠানের ফাঁকে ফাঁকে সঙ্গীত পরিবেশন করেন মাটি, মুহিন, সাব্বির, মেহরাব ও মম। সবশেষে সালমা বলেন, ‘সবার উপস্থিতি আমাকে এতোটাই মুগ্ধ করেছে যে, সত্যিই আমার বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। আমি সবার এতোটা ভালোবাসার ও স্নেহের এই অনুষ্ঠানে নতুন করে তা উপলদ্ধি করতে পারছি। আমি গানের মানুষ, গান নিয়েই আপনাদের মাঝে বেঁচে থাকতে চাই।’

Comments are closed.