রেকর্ড গড়ে হারলো টাইগাররা

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পর বড় স্কোর করেও কিউইদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে জয়ের দেখা পেলো না বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের কাছে ৭ উইকেটে পরাজিত হয়েছে টাইগাররা। বাংলাদেশের দেয়া ২১৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে তিন উইকেটে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছায় কিউইরা।

৩২ রানের ওপেনিং জুটি পায় নিউজিল্যান্ড। এরপর মেহেদী হাসান মিরাজের জোড়া আঘাতে দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে ম্যাচের দারুণভাবে খেলায় ফিরে আসে বাংলাদেশ। জিত রাভালকে নিজের বলে নিজে তালুবন্দি করার পর টম লাথামকে বোল্ড করেন মিরাজ।

এরপর দারুণ এক জুটি গড়েন নিউজিল্যান্ডের অন্যতম সেরা দুই ব্যাটসম্যান রস টেইলর ও অধিনায়ক উইলিয়ামসন। ১৬৩ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়ে বাংলাদেশের স্বপ্ন টেস্ট বাঁচানোর স্বপ্ন ভেঙ্গে দেন এ দুই ব্যাটসম্যান। কিউইদের এ জুটি ভাঙেন অভিষিক্ত শুভাশিস। দ্বিতীয় স্লিপে মিরাজের তালুবন্দি হয়ে আউট হন টেইলর। এরপর বাকি কাজ হেনরি নিকোলসকে নিয়ে শেষ করেন উইলিয়ামসন।

শেষ পর্যন্ত ব্যাটিং করে ক্যারিয়ারের ১৫তম সেঞ্চুরি তুলে নেন উইলিয়ামসন। ৯০ বলে মোকাবেলা করে ১৫টি চারের সাহায্যে ১০৪ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। এছাড়া ৭৭ বলে ৬টি চারের সাহায্যে ৬০ রান করেন টেইলর। বাংলাদেশের পক্ষে ৬৬ রানে ২টি উইকেট নেন মিরাজ। এছাড়া ১টি উইকেট পান শুভাশিস।

এদিকে টেসে্ট টাইগারদের পরাজয়ের মধ্য দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটের ১৪০ বছরের দীর্ঘ ইতিহাসের বিরলতম ঘটনার জন্ম হলো আজ ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে। প্রথম ও একমাত্র দল হিসেবে ৫৯৫ রানের হিমালয় সমান স্কোর গড়ে হারা প্রথম দল বাংলাদেশ। এ দীর্ঘ ইতিহাসে এর আগে কোনো দলের ৫৯৫ রানের বিশাল স্কোর নিয়ে হারের রেকর্ড ছিল না।
এর আগে টেস্টের প্রথম ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ৫৮৬ রান করে ম্যাচ হারের রেকর্ড ছিল অস্ট্রেলিয়ার। সেই ১৮৯৪ সালে সিডনিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে ৫৮৬ রানের বিশাল স্কোর গড়েও শেষ পর্যন্ত ম্যাচ হারে অজিরা। টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ইনিংসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৫৬ রান করে হারের রেকর্ডটাও অস্ট্রেলিয়ার। ২০০৩ সালে ঘরের মাঠে এডিলেডে ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে ওই রান করেও ম্যাচ জিততে পারেনি অস্ট্রেলিয়া।
টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে তৃতীয় সর্বাধিক ৫৫১ রান তুলে হারের রেকর্ডটা ইংল্যান্ডের। সেটা ২০০৬ সালের ঘটনা। অ্যাডিলেডে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৬ উইকেটে ৫৫১ রান তুলে ইনিংস ঘোষণার পর উল্টো হেরে যায় ইংলিশরা।

Comments are closed.