`ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ অর্জনে দক্ষ জনগোষ্ঠীর বিকল্প নেই`

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ অর্জনে দক্ষ ও প্রশিক্ষিত জনগোষ্ঠীর বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

সোমবার স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলন কক্ষে বঙ্গবন্ধু দারিদ্র্য বিমোচন ও পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (বাপার্ড), গোপালগঞ্জ-এর পরিচালনা বোর্ডের ১ম সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত আয়ের দেশে পরিণত করতে সকল ক্ষেত্রে প্রশিক্ষিত ও দক্ষ জনগোষ্ঠী তৈরি করার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি সম্মান থেকে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাপার্ড। বাপার্ড বিভিন্ন গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা ও গুণগত প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জনগণের জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

প্রতিমন্ত্রী মোঃ মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে প্রতিষ্ঠিত এ একাডেমী যাতে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জনগোষ্ঠীর ভাগ্যোন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করে সেভাবে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে কাজ করতে হবে।

উল্লেখ্য, পূর্বতন বিআরডিবি ট্রেনিং একাডেমী ২০১২ সালে বাপার্ড নামে যাত্রা শুরু করে। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের দারিদ্র বিমোচন ও জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে ১৬ নভেম্বর ২০১১ তারিখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাপার্ড-এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। বর্তমানে বাপার্ড সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়নে মার্চ, ২০১০ হতে জুন, ২০১৮ মেয়াদে ৩২৬ কোটি ৮৪ লক্ষ ৭১ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রকল্প কাজ বাস্তবায়িত হচ্ছে।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে এলজিআরডি ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মোঃ মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ, স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেক, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব ড. প্রশান্ত কুমার রায়, বাপার্ড-এর ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক আনন্দ চন্দ্র বিশ্বাস (অতিরিক্ত সচিব)সহ বোর্ডের সদস্য ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন । বাসস।

Comments are closed.