বিএনপিকে দুই বছর ধৈর্য ধরতে বললেন নাসিম

ওয়ান নিউজঃ বিএনপিকে আরও দুই বছর ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন ১৪-দলীয় জোটের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ
নাসিম। তিনি বলেছেন, ‘আপনারা গত বছর ধৈর্য দেখিয়েছেন, আগামী নির্বাচন পর্যন্ত ধৈর্য দেখান। আগামী নির্বাচনে আপনারা আসবেন, এটা আমরা চাই।’

আজ শনিবার দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৪-দলীয় জোটের বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মোহাম্মদ নাসিম এসব কথা বলেন। ১৪-দলীয় জোটের পক্ষ থেকে আগামী ২০-২১ জানুয়ারি বগুড়া ও রংপুর জেলার বিভিন্ন স্থানে শীতার্ত লোকজনের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

মোহাম্মদ নাসিম আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি একটি শক্তিশালী ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনে তাঁর যে সাংবিধানিক দায়িত্ব, তা পালন করবেন। যে রাজনৈতিক দলগুলো রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আলোচনায় অংশ নিয়েছেন, তাদের সবাইকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। তাদের ধৈর্যের সঙ্গে অপেক্ষা করতে বলব। রাষ্ট্রপতি যে নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন, তার অধীনে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য তারা আমাদের সহযোগিতা করবেন।’

১৪ দলের বৈঠকে গাইবান্ধার সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটনকে হত্যার তীব্র নিন্দা ও শোক প্রকাশ করা হয়েছে উল্লেখ করে নাসিম বলেন, ‘জামায়াত-শিবির এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অনুরোধ করব, দোষী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে আইনের হাতে সোপর্দ করবেন।’

বিরোধী মত ও দলকে দমন-পীড়ন করা হচ্ছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এমন অভিযোগকে নাকচ করে দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘দমন-পীড়ন করার প্রশ্নই আসে না। তারা স্বাধীন ও সুষ্ঠুভাবে কাজ করছে।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নাসিম বলেন, ‘সংবিধানের ১১৮ ধারা অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির নির্বাচন কমিশন গঠনের ক্ষমতা রয়েছে। তিনি যে সিদ্ধান্ত নেবেন; তাঁর যেকোনো সাংবিধানিক সিদ্ধান্ত আমরা মেনে নেব।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুব উল আলম হানিফ, সুজিত রায় নন্দী, আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবদুস সোবহান গোলাপ, বিপ্লব বড়ুয়া, ওয়ার্কার্স পার্টির ফজলে হোসেন বাদশা, জাসদের (একাংশ) নাজমুল হক প্রধান, জাসদের (একাংশ) শিরিন আখতার, তরিকত ফেডারেশনের এম এ আউয়াল, গণতন্ত্রী পার্টির শাহাদাৎ হোসেন, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ওয়াজেদুল ইসলাম খান প্রমুখ।

Comments are closed.