বায়তুশ শরফের ঐতিহাসিক মাহফিলে ইছালে ছওয়াব কাল শুরু

ওয়ান নিউজঃ কক্সবাজার বায়তুশ শরফের দুই দিনব্যাপী ঐতিহাসিক মাহফিলে ইছালে ছওয়াব (ফাতেহা-এ-ইয়াজ দাহুম) কাল শুরু হবে। কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স মাঠে বাদে আসর থেকে মাহফিলের প্রথম দিনের কার্যক্রম আরম্ভ হবে। দুই দিনের ইছালে ছওয়াব মাহফিলের জন্য নিয়োজিত করা হয়েছে ৪০টি টিমের প্রায় দেড় হাজার স্বেচ্ছাসেবক। এতে বয়ান করবেন খ্যাতনামা আলোচকরা। এছাড়া গন্যমান্য গুনীজনেরাও মাহফিলে তশরীফ আনবেন। মাহফিলের শেষ দিনে দেশ ও জাতীর কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত হবে।
মাহফিলের প্রধান আকর্ষণ বায়তুশ শরফের প্রাণ পুরুষ বাহারুল উলুম আল্লামা কুতুব উদ্দিন (ম.জি.আ) সোমবার (৮ জানুয়ারী) মাহফিলের বিভিন্ন প্রস্তুতিমূলক কাজ পরিদর্শন করেন। মতবিনিময় করেন মাহফিল বাস্তবায়নে গঠিত বিভিন্ন কমিটি, উপ-কমিটির কর্তা ব্যক্তিদের সাথে।
এদিকে সোমবার বাদে মাগরিব বায়তুশ শরফের পীর আল্লামা কুতুব উদ্দিনের উপস্থিতিতে মাহফিলের সর্বশেষ প্রস্তুতি বিষয়ে সভায় ব্রিফ করেন মাহফিল উদযাপন পরিষদের আহবায়ক ও বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক আলহাজ্ব এমএম সিরাজুল ইসলাম।
এতে তিনি বলেন, কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সে অলিকুল শিরোমনি বড়পীর হযরত আব্দুল কাদের জিলানী (রহঃ) এর মাগফিরাতের জন্য ইছালে ছওয়াব (ফাতেহা-এ- ইয়াজ দাহুম) মাহফিলের আয়োজন করা হয়ে থাকে। এটি আল্লাহওয়ালা মানুষদের বিরাট মিলনমেলাও বটে। সর্বশ্রেনী পেশার মানুষের সহযোগিতায় এ মাহফিল বাস্তবায়ন হয়ে থাকে।
তিনি বলেন, বড় পীর হযরত আব্দুল কাদের জিলানী রহঃ মহান আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি অর্জনে রসুল পাক (স.) এর অনুসরণে অনেক বড় অবদান রেখেছেন। দিশা হারা মুসলমানদেরকে তিনি সত্যিকারের ইসলামের দাওয়াত, রূহানী তাকীন ও সমাজ সেবার মাধ্যমে ইহকালীন কল্যাণ ও পরকালীন মুক্তির পথ বাতলিয়ে দিয়েছেন। বায়তুশ শরফ সিলসিলার পীর মুর্শিদরা তাঁর সেই অবদানকে স্মরণ করে প্রতি বছর পবিত্র মাহফিলে ইছালে ছওয়াব (ফাতেহায়ে ইয়াজ দাহুম) উদযাপন করে থাকে।
এবারের মাহফিল বাস্তবায়ন উপলক্ষ্যে গঠিত বিভিন্ন উপ-কমিটিতে রয়েছে- কক্সবাজার সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর এম এ বারী, বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্স এর যুগ্ম সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা এসএম কামাল উদ্দিন, মাওলানা শফিক আহমদ, মাস্টার ফরিদ অহমদ, আলহাজ্ব আব্দুশ শুক্কুর, মাহমুদুল হক কোম্পানী, মাওলানা ওমর ফারুক, আলহাজ্ব আলাউদ্দিন, মাস্টার ছৈয়দ করিম, আলহাজ্ব মফিজুর রহমান, আলহাজ্ব মাহফুজুল ইসলাম, হাজী ওসমান গণী, আলহাজ্ব নূরুল আলম, রশিদ আহমদ, দিদারুল আলম, মনছুর আলম, মোঃ শফিকুর রহমান, শওকতুল ইসলাম, মোঃ রফিক মিয়া, জাফর উল্লাহ, শামসুল করিম, আবুল কালাম আবু, মুহাম্মদ আবদুর রহীম, মাওলানা শফি, মাওলানা হাফেজ নাছির উদ্দিন, সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ ও সাংবাদিক শামসুল হক শারেক প্রমূখ।

Comments are closed.