ঝিনাইদহে আদালতের সমন অবজ্ঞা করায় চিকিৎসক সাক্ষিকে জরিমানা-অনাদায়ে ৫ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

আদালতের সমন অবজ্ঞা করে সাক্ষি দিতে না আসায় মোস্তাফিজুর রহমান নামে এক সাক্ষি চিকিৎসককে দুই’শ পঞ্চাশ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৫ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝিনাইদহের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ জাকির হোসেন এই আদেশ দেন। আদালতের আদেশে বলা হয়েছে মেডিকেল সনদ দেওয়ায় ঝিনাইদহ আদালতে চলা ঝি.জি.আর ৪৮৫/৭ মামলার ডাক্তারী সাক্ষি ছিলেন ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান।

 

মামলাটি ধীর্ঘদিন ধরে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে বিচারাধীন। ২০১৬ সালের ৮ আগষ্ট তারিখে ১৪২৩ নং স্মারক মুলে সাক্ষির প্রতি সমন ইস্যু করা হয়। এ ছাড়া বিভিন্ন তারিখে সাক্ষি ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমানের প্রতি ডবিøউ.ডবিøউ, এনবিডবিøউ ইস্যু করা হয়।

 

আদালতের বেঞ্চ সহাকারী ব্যক্তিগত ভাবে মোবাইলে ডাঃ মোস্তফিজুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করে সাক্ষির বিষয়ে অবহিত করা সত্বেও তিনি সাক্ষ্য প্রদান করতে আসেন নি। এতে মামলা নিস্পত্তিত্বে বিলম্ব হচ্ছে। আদালতে সাক্ষ্য না দেওয়ায় আসামীগন মাসের পর মাস অপেক্ষায় থেকে অহেতুক সময় ও টাকা খরচ করছে।

 

আদালতের প্রসেসকে অবজ্ঞা করায় ফেওজদারী কার্যবিধির ৪৮৫এ(১) ধারায় অপরাধে দোষি মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আদালত ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমানকে দুই’শ পঞ্চাশ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৫ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন।

Comments are closed.