সারাদেশে বিএনপির কালো পতাকা মিছিল আজ

ওয়ান নিউজ ডেক্স: আজ ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তৃতীয় বর্ষপূর্তিতে বিএনপি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ পালন করবে। সারাদেশে জেলা-উপজেলায় কালোব্যাজ ধারণ ও কালো পতাকা মিছিল করে দিবসটি করবে দলটি। তবে ঢাকায় কোনো কর্মসূচি নেই। ক্ষমতাসীন দলের পক্ষ থেকে বিএনপির কর্মসূচি প্রতিহত করার ঘোষণা দেওয়ার প্রেক্ষাপটে দলটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে- তারা কোনোরকম সংঘাতে যাবে না। ‘শান্তিপূর্ণভাবে’ কর্মসূচি পালনের জন্য কেন্দ্র থেকে জেলা-উপজেলা পর্যায়ের নেতাদের কাছে বার্তা পাঠিয়েছে বিএনপি। কোনো ধরনের উস্কানিতে পা না দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।
দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গত বছরও শান্তিপূর্ণভাবে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ পালন করেছে বিএনপি। এ বছরও পালন করবে। এটা আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। আশা করি- সরকার আমাদের কর্মসূচিতে বাধা দিবে না। দলের একজন সিনিয়র নেতা জানিয়েছেন, রাষ্ট্রপতির সংলাপ শেষের আগে আমরা হার্ডলাইনে যাবো না। নির্বাচন কমিশন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সংলাপ কার্যকর ও অর্থবহ হবে- এমনটাই আমরা প্রত্যাশা করছি। রাষ্ট্রপতির সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিস্থিতি তৈরির ওপর নির্ভর করছে বিএনপির পরবর্তী কর্মসূচি।
এদিকে আগামী ৭ জানুয়ারি রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে চায় বিএনপি। ওই সমাবেশে বিশাল শো-ডাউনের পরিকল্পনা নিয়েছে দলটি। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের অনুমতি না পেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি কর্মসূচি পালনের বিকল্প চিন্তাও আছে। গত বছর ৫ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করেছিলো তারা। সেই সমাবেশের জন্য ১২ ঘণ্টা আগে অনুমতি দিয়েছিলো সরকার। এবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার জন্য গত ২৬ ডিসেম্বর অনুমতি চেয়ে পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়েছে দলটি। তবে গত ১০ দিনেও তাদেরকে পুলিশের পক্ষ হতে কিছু জানানো হয়নি। তবে দলের নেতারা আশা করছেন শেষ মুহূর্তে তারা গত বছরের মতো অনুমতি পাবেন।
এদিকে দলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ জানান, আজ ঢাকা এবং পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোর মূল দল ও অঙ্গ সংগঠনগুলোর সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ নেতাদের যৌথসভা ডাকা হয়েছে। আজ দুপুর তিনটায় দলের নয়া পল্টন অফিসে এই সভা অনুষ্ঠিত হবে। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, আমরা আশা করি অতীতের মতো শেষ বেলায় না দিয়ে আগেভাগেই সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ সমাবেশের জন্য অনুমতি দেবে পুলিশ।
দলের মুখপাত্র ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, সমাবেশ শান্তিপূর্ণভাবে সফল করতে আমরা ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছি। পুলিশের পক্ষ থেকে এবারও অনুমতি দেওয়া নিয়ে গড়িমসির আশঙ্কা করছি। তবে কর্মসূচি পালনের ব্যাপারে বিএনপি বদ্ধপরিকর। স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ৫ জানুয়ারি ঘনিয়ে আসলে আওয়ামী লীগ দুর্বল হয়ে পড়ে। এ কারণে বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দিতে সরকারের এত ভয়।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আজ ঢাকায় সমাবেশের চিন্তা-ভাবনা ছিলো বিএনপির। তবে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের দুর্নীতির মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে আজ বৃহস্পতিবার আদালতে হাজিরা দেওয়া বাধ্যতামূলক করে দেওয়ার ফলে তারা সেই পরিকল্পনা থেকে সরে আসে। এ দিন আদালতে হাজির না হলে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করা হবে।

Comments are closed.