শামলাপুরে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে আহত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন:

টেকনাফে হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে যুবলীগ নেতা আবদুল মালেক। এসময় হামলাকারীর্ দেড় লাখ টাকাও লুট করে নিয়ে যায়। বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর বাজারস্থ নুরুল ইসলাম মার্কেটে মালেক স্টোরে এ ঘটনা ঘটেছে। আহত যুবলীগ নেতাকে আশংকা জনক অবস্থায় রাতেই কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসি ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, বাহারছড়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা আবদুল মালেক নিত্য দিনের ন্যায় বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে শামলাপুর বাজারস্থ নুরুল ইসলাম মার্কেটে তার মালিকানাধীন মালেক স্টোরে ( জাল ও রশি বিক্রির দোকান) বেচা-বিক্রি করছিল। আকস্মিকভাবে একই এলাকার মৃত নাছির মোহাম্মদের ছেলে ও বাহারছড়া ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি আবদুল হক, তার ছেলে ইউনিয়ন যুবদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ রাসেল ও ছেলে ইউনিয়ন ছাত্র দলের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোহেল, ফায়সাল , মোঃ রাজু,মৃত আবদুল্লাহ ছেলে ও ইউনিয়ন ছাত্র দল নেতা মোঃ ইলিয়াছসহ আরো ৩/৪ জন সশস্ত্র অবস্থায় এসে আবদুল মালেকের উপর হামলা চালায়। বিএনপি নেতারা তাকে এলোপাতাড়ি কূপায় ও হাতুড়ি এবং লোহার রড দিয়ে বেধড়ক পেটায়। এতে শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখমপ্রাপ্ত। হামলাকারীরা দোকানের ক্যাশ বাক্স থেকে নগদ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। উপস্থিত লোকজন এগিয়ে আসলে সশস্ত্র হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন আহত যুবলীগ নেতাকে উদ্ধার করে রাতেই কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত মালেকের ভাই যুবলীগ নেতা আবু ছিদ্দিক জানান, রাজনৈতিক ভাবে বিএনপি, ছাত্রদল ও যুবদল নেতাদের সাথে মতবিরোধ চলে আসছিল। মতবিরোধের জেরধরেই মুলত বর্বরভাবে আমার ভাইকে হামলা ও দোকানের ক্যাশ বাক্স থেকে দেড় লাখ টাকা লুট করেছে। এব্যাপারে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে বলে জানান।

Comments are closed.