যশোর জেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক মিলন গ্রেপ্তার

tak-milon.jpg

ইয়ানূর রহমান : হত্যাসহ একাধিক মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামি জেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক জাহিদ হোসেন মিলন ওরফে টাক মিলনকে (৪৫) যশোর ডিবি পুলিশ আটক করেছে। আটক মিলন শহরের কাজিপাড়া মানিকতলা এলাকার মৃত শেখ রুস্তম আলীর ছেলে।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, রোববার ১২ জানুয়ারি রাতে ঢাকার শাহজ্বালাল আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দর থেকে ইমিগ্রেশন পুলিশ মিলনকে আটক করে। মিলন যশোর কোতয়ালি থানার তিনটি মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামি। মামলা গুলো তদন্ত করছে যশোর ডিবি পুলিশ। ওয়ারেন্ট নাম্বার হচ্ছে এস টিসি ২২৫/১৬, এস টিসি ২৬৩/১৫, এর জি আর ৪১৮/১২, এস টিসি ২৪৮/১৭।

এসব মামলায় দীর্ঘদিন মিলন পলাতক থাকায় যশোর পুলিশের পক্ষ থেকে বিভিন্ন থানায় ও ইমিগ্রেশন গুলোতে ইনফরমেশন দেয়া ছিলো। এর ভিত্তিতে ইমিগ্রেশন পুলিশ মিলনকে আটক করে ডিবি পুলিশকে খবর দেয়। সোমবার ১৩ জানুয়ারি সকালে ইমিগ্রেশন পুলিশ মিলনকে ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

তৌহিদুল ইসলাম আরো জানান, রোববার রাতে মিলন দুবাই থেকে শাহাজ্বালাল আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দরে পৌছুলে ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে আটক করে।

ডিবির ওসি মারুফ আহমেদ জানান, মিলন কাজিপাড়ার সোহাগ হত্যা, সিনবাদ হত্যা, হাতকাটা মুনির হত্যাসহ বেশ কয়েকটি হত্যার সাথে পরোক্ষ ভাবে জড়িত। সোহাগ হত্যা মামলার আসামি আকাশ আটকের পর সে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবান বন্দি দেয় মিলনের নির্দেশে সোহাগকে হত্যা করা হয়। এছাড়াও মিলনের নামে কোতয়ালি থানায় হত্যা, চাঁদাবাজি, ছিনতাইসহ অর্ধ ডজন মামলা রয়েছে।