আপডেটঃ
নির্বাচনী প্রচারণার শুরুতেই সহিংসতায় নিহত ১গায়েবি মামলা, আটক ও রিমান্ড ফৌজদারি ও মানবতাবিরোধী অপরাধআজ পুলিশের দুই এসআই হত্যা মামলার রায়ছেড়া দ্বীপে নীল-সবুজের হাতছানিপরপুরুষের সঙ্গে দীপিকার ‘ঘনিষ্ঠ’ ভিডিও ভাইরাল!ভেনিজুয়েলায় পৌঁছাল রাশিয়ার ২ পরমাণু বোমারু বিমানআজ ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবসরামু উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদকসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলামহিলাদের অধিকার আদায় ও খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে ধানের শীষে ভোট দিন : শিরিন রহমাননৌকায় ভোট দিলে গরীবের অধিকার নিশ্চিত হবে-এমপি বদিগিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরীসহ ৫০০ বিএনপি নেতাকর্মীর জামিনটাইগারদের হারিয়ে সিরিজ সমতায় উইন্ডিজকর্ণফুলীর ব্রিজঘাটে সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ পথসভায়- ‘এই নৌকা আপনাদের কর্ণফুলী উপজেলা উপহার দিয়েছে’ফখরুলের নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা, আহত ১০নির্বাচনী উত্তাপ যেন উত্তপ্ত না হয়: সিইসি

দ্বিতীয় দিনে প্রার্থীতা ফিরে পেলেন ৭৮ জন

EC-12.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে আপিল শুনানির দ্বিতীয় দিনে প্রার্থীতা ফিরে পেয়েছেন আরো ৭৮ জন। এর আগে বৃহস্পতিবার (০৬ ডিসেম্বর) প্রথমদিনের শুনানিতে ৮০ জন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছিলেন।

আজ বিএনপি প্রার্থী এম রশিদুজ্জামান মিল্লাত, গণফোরামের প্রার্থী রেজা কিবরিয়া, জাতীয় পার্টির সোহেল রানা (মাসুদ পারভেজ) প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

দ্বিতীয় দিনে ১৫০ জনের আপিল শুনানি করে এমন রায় দিয়েছেন নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন ভবনের ১১ তলায় স্থাপিত এজলাসের প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে শুক্রবার অন্য নির্বাচন কমিশনাররাও আপিলের শুনানি করেন।

এদিনের শুনানিতে ৭৮ জনের প্রার্থিতা ফিরিয়ে দেন নির্বাচন কমিশন। ৬৫ জনের আপিল আবেদন নামঞ্জুর করেন। আর পেন্ডিং রয়েছে ৭টি আবেদন।

আর বাদ পড়লেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার, বিএনপি নেতা জেডএম জাহিদ হোসেন, জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব রুহুল আমীন হাওলাদারসহ ৬৫ জন।

গত ২ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র বাছাইয়ে ২ হাজার ২৭৯টি মনোনয়নপত্র বৈধ ও ৭৮৬টি অবৈধ বলে ঘোষণা করেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। এগুলোর মধ্যে বিএনপির ১৪১টি, আওয়ামী লীগের ৩টি এবং জাতীয় পার্টির ৩৮টি মনোনয়নপত্রও বাতিল হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে ৩৮৪টি।

৩৯টি দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলে এবার ৩০৬৫টি মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিল। এর মধ্যে দলীয় মনোনয়নপত্র জমা পড়ে মোট ২ হাজার ৫৬৭টি ও স্বতন্ত্র ৪৯৮টি।

তিনদিনের আপিল শুনানি শেষ হবে ৮ ডিসেম্বর (শনিবার)। ৯ ডিসেম্বর (রবিবার) প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময়। ১০ ডিসেম্বর (সোমবার) প্রতীক বরাদ্দ। আর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ৩০ ডিসেম্বর (রবিবার)।

এর আগে বৃহস্পতিবার (০৬ ডিসেম্বর) প্রথমদিনের শুনানিতে ৮০ জন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছিলেন। এরমধ্যে বিএনপির ছিল ৩৮ জন। আবেদন নামঞ্জুর হয়েছিল ৭৬টি আর পেন্ডিং ছিল ৪টি।

Top