আপডেটঃ
সব সদস্য রাষ্ট্র একসঙ্গে কাজ করলে শান্তি নিশ্চিত হয় : স্পিকারনির্বাচন কবে, জানতে চাইলেন মার্কিন কূটনীতিকসভাপতি কমল এমপি, সাধারণ সম্পাদক হুদা বঙ্গবন্ধু পরিষদ কক্সবাজার জেলা কমিটি অনুমোদনযশোরে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহতহিলিতে জাতীয় ইদুঁর নিধন অভিযানের উদ্বোধনসৌদি কনস্যুলেট খাসোগিকে খুঁজবেন তুর্কি তদন্তকারীরালালন শাহের ১২৮ তম তিরোধান দিবসপর্যটক ও পূণ্যার্থীদের দুর্ভোগ… রামু চাবাগান- উত্তর মিঠাছড়ি সড়কে অসংখ্য গর্ত ॥ সংস্কার জরুরীচট্টগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ ১৩টি পাহাড়ে অবৈধ বসবাসকারীকে সরানো যাচ্ছেনাকর্ণফুলীতে চলছেনা গাড়ি: আরাকান মহাসড়কে ধর্মঘটফেসবুকে নায়িকা সানাই এর ২৭৮টি ভুয়া অ্যাকাউন্ট,থানায় জিডিসেন্টমার্টিনে রাত্রিকালীন নিষেধাজ্ঞা: পর্যটন খাতে নেতিবাচক প্রভাবের আশঙ্কাআশা ইউনিভার্সিটিতে সুচিন্তা’র জঙ্গিবাদবিরোধী সেমিনারশাহপরীরদ্বীপে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৪ পরিবার পেল নগদ টাকাসহ ৩০ কেজি করে চালবেনাপোল কাস্টমসে ১কেজি ৭শ গুড়ো সোনা সহ আটক ১

মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে ক্ষমতায় বসেছি: প্রধানমন্ত্রী

hasina-PM-1-1.jpg

রোববার গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা -ফোকাস বাংলা

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসনিা বলেছেন, ঢাকাকে আধুনিক নগর হিসেবে গড়ে তোলা হবে। পুরো ঢাকাজুড়ে আমরা সার্কুলার রোড করবো, এই সার্কুলার রোড হবে মাটিতে নয় আকাশজুড়ে, এলিভেটেড এক্সপ্রেস হবে।

দুর্নীতি করতে নয়; মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে ক্ষমতায় বসেছি বলেও জানান তিনি।

শনিবার ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের ২২তম জাতীয় সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশ যতো এগিয়ে যাবে, যত উন্নত হবে, তত বেশি সুফল ভোগ করা যাবে। তাই এ অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হবে।

পদ্মাসেতু নির্মাণের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘একজন নোবেল জয়ী পদ্মাসেতু নির্মাণের ব্যাপারে বহির্বিশ্বে নেতিবাচক ভূমিকা পালন করেছেন। কানাডার আদালতে দুর্নীতির অভিযোগ তোলা হয়েছে। কিন্তু কোনো দুর্নীতি প্রমাণ হয়নি। আমি তখন বলেছিলাম- আমি দুর্নীতি করতে বসিনি, মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে বসেছি। নিজস্ব অর্থায়নেই পদ্মাসেতু নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছিলাম এবং আমরা তা করছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা কোথায় ছিলাম, কী অবস্থায় ছিলাম, সেটা কেউ জানেও না। এই প্রজন্ম সেসব জানে না। কিন্তু আজ আমরা বিভিন্ন ফসল উৎপাদনে সারা বিশ্বে শীর্ষদের তালিকায় আছি। মাছ থেকে শুরু করে ধান-সবজি উৎপাদনে বিশ্বের কোথাও তৃতীয়, কোথাও চতুর্থ-পঞ্চম অবস্থান এখনও আমাদের। গত নয় বছরে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নিয়ে দেশকে এ অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

মানুষের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, কোনো সরকার কোনো দেশে ১২৩ ভাগ বেতন বাড়াতে পারে কিনা আমার জানা নেই। আমরা তা করেছি। অনেক প্রকল্প হাতে নিয়েছি, যার সুফল বাংলাদেশ পাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সাধারণত বর্ষাকালে বাংলাদেশে সব জিনিসের দাম বাড়ে। কিন্তু এবার দাম বাড়েনি। দেশে মুদ্রাস্ফীতি সহনীয় পর্যায়ে আছে। নয় বছর কাজ করে বাংলাদেশকে আমরা উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছি। আমাদের সেভাবেই এগিয়ে যেতে হবে।

দেশজুড়ে টেকনিকেল শিক্ষা ছড়িয়ে দিতে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, প্রতিটি উপজেলায় একটি করে টেকনিকলে স্কুল ও কলেজ স্থাপন করবো। এর কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

Top