আপডেটঃ
“সংসদ নির্বাচন” ইসির ক্ষমতার প্রয়োগ দেখতে চাইহাঁটলে ওজন কমে, কিন্তু কতক্ষণ?টিভিতে ফেরদৌস-মৌসুমীর ‘পোষ্ট মাস্টার ৭১’জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাকে পাচ্ছেন কোটি টাকা?কালো টাকায় মনোনয়ন বাণিজ্যআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের সত্যিকারের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হয়: শেখ আফিল উদ্দিন এমপিপ্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামীলীগ সরকার: সিরাজুল হক মঞ্জু৪৮তম বিজয় উদযাপনে প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধবিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেপ্তার বন্ধ না করলে কঠোর আন্দোলন : শাহজাহান চৌধুরীআ’লীগের জুলুম-নির্যাতনের জবাব দিতে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত ধৈর্য ধরুন : লুৎফুর রহমান কাজলউখিয়া-টেকনাফের সাধারন জনগনের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে নৌকার প্রার্থী শাহীনক্রিকেটের মতো রাজনীতিতেও অবদান রাখতে চান মাশরাফি১৯ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের নিয়মিত বিচারিক কার্যক্রম বন্ধসেনাবাহিনীকে গ্রেপ্তারের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে : সিইসি

১৪-০ গোলে পাকিস্তানকে বিধ্বস্ত করলো বাংলাদেশ

bd-football.jpg

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ ষাট মিনিটে ১২ গোল। গড়ে প্রতি পাঁচ মিনিটে একটি। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের মেয়েদের জয়ের ব্যবধান শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটাই ছিল দেখার। না, ১২-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর ১৩ নম্বর গোল করতে বাংলাদেশের মেয়েদের অপেক্ষা করতে হয়েছে ২৮ মিনিট। শেষ দুই মিনিটে দুই গোল করে ১৪-০ ব্যবধানের বিশাল জয় নিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু করেছে বাংলাদেশের কিশোরীরা।

বৃহস্পতিবার ভুটানের থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে বাংলাদেশ প্রথমার্ধে এগিয়েছিল ৬-০ গোলে। শামসুন্নাহার একাই করেছেন ৫ গোল। দুটি করে গোল করেছেন তহুরা খাতুন, আনাই মগিনি ও সাজেদা খাতুন। বাকি ৩ গোল করেছেন মারিয়া মান্ডা, মনিকা চাকমা ও আখি খাতুন।

Women Football

৮ মাস আগে ঢাকায় অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ফাইনালে ভারতকে ১-০ গোলে হারিয়ে। দ্বিতীয় আসরে চ্যাম্পিয়নের মতোই শুরু করেছে লাল-সবুজ জার্সিধারী কিশোরীরা। প্রথমবার এই টুর্নামেন্টে খেলতে এসে পাকিস্তানের মেয়েরা যেন চোখে সরষেফুল দেখেছেন।

৫ মিনিটে গোল উৎসব শুরু করেছেন তহুরা খাতুন। শেষ করেছেন ৯০ মিনিটে শামসুন্নাহার। মাঝে আরো ১২ বার নিজেদের জাল থেকে বল কুড়িয়েছেন পাকিস্তানের গোলরক্ষক। বাংলাদেশের গোলরক্ষক মাহমুদা অলস সময় কাটিয়েছেন। তাইতো মাঝেমধ্যে তিনিও উপরে উঠে সতীর্থদের বল জোগানোর চেষ্টা করেছেন। হয়তো শরীরটা গরম রাখার জন্যই। থিম্পুতে রাতে যে বেশ ঠান্ডাই পড়ে!

পাকিস্তান সাফ অঞ্চলে কিশোরীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে খেলেনি। প্রথমবার এই বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্ট খেলতে নেমে কী নাস্তানাবুদই না হতো হলো দেশটির মেয়েদের! ৫, ১৭, ১৯, ৩১, ৩৯ ও ৪০ মিনিটে বাংলাদেশ গোল করে প্রথমার্ধে এগিয়ে থাকলো ৬-০ ব্যবধানে। পরের ৮ গোল এলো ৪৮, ৫০, ৫৪, ৫৭, ৫৮, ৬০, ৮৮ ও ৯০ মিনিটে।

women Football

এক সময়তো বাংলাদেশের গোল হিসেবে রাখাই দুস্কর হয়ে উঠেছিল। একটি গোলের নোট নিতে না নিতেই আরেকটা। থিম্পুর চিংলামিথাং স্টেডিয়ামের ডাগআউট থেকে মেয়েদের বাংলাদেশ, বাংলাদেশ স্লোগান যেন ছড়িয়ে পড়ছিল লাল-সবুজ দেশের প্রতিটি কোনে।

১২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পরও সবার প্রতিক্ষা ছিল গোল বাড়ানোর। আগের ম্যাচে শ্রীলংকার জালে ভারত দিয়েছে ১২ গোল। চ্যাম্পিয়রদের তার চেয়ে বেশি না দিলে হয়? শেষ পর্যন্ত ১৪ গোলের বিশাল জয়ে চ্যাম্পিয়নের মতোই শুরু করলো বাংলাদেশ।

এ ম্যাচ জিতে সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রাখলো বাংলাদেশের কিশোরীরা। সোমবার (১৩ আগস্ট) গ্রুপের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচ নেপালের বিরুদ্ধে।

Top