আপডেটঃ
উখিয়া-টেকনাফবাসী রোহিঙ্গাদের জন্য যে উদারতা দেখিয়েছে তা মাদকের বদনামে ধুলিস্যাৎ করা যাবেনাঃ বাহাদুরমাস্টার্স ফাইনালে কক্সবাজার সিটি কলেজের পাশের হার ৮৭%মির্জা ফখরুলের বক্তব্য ‘রাষ্ট্রদ্রোহিতা’র সামিল: কাদেরঈদ যাত্রা: শিডিউলে নেই ট্রেন, ঠিক সময়ে মিলছে বাসঈদ: মশলার জোগাড়, দেরি নয় আরনিরাপদ বাংলাদেশের দাবিতে আসুন ঐক্যবদ্ধ হই: ফখরুলসজল-মিমের বিপরীত ভালোবাসাপাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানচট্টগ্রাম যুবকের গলা কাটা লাশ: ডা.রোকসানা আটকযশোরের শার্শা সীমান্ত হতে ৭১৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধারবিএনপি নেতা খসরুকে দুদকে তলববুদ্ধিজীবী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় গোলাম সারওয়ারঅটল বিহারী বাজপেয়ী আর নেইমুক্তিযোদ্ধা বিন্টু মোহন বড়ুয়া ছিলেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের নিবেদিত প্রাণ সমাজ সেবক- এমপি কমলবহু ব্যবসায়ীকে পথে বসিয়ে দেওয়া সেই প্রতারক ডিবির হাতে গ্রেফতার

বিমানবন্দর-কাঞ্চন সেতু পর্যন্ত প্রথম পাতাল রেল হবে: কাদের

Obaidul-Kader.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ রাজধানীর যানজট নিরসনে এবং বৃহত্তর ঢাকার পরিবহন ব্যবস্থাকে সুষ্ঠু, পরিকল্পিত, সমন্বিত ও আধুনিকায়ন করার লক্ষ্যে সরকার মেট্রোরেল নির্মাণ প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

এই মেগা প্রকল্পটি ৫টি রুটের মাধ্যমে নগরবাসীর সেবা দেবে। এর মধ্যে এমআরটি লাইন-৬ এর কাজ ৮টি প্যাকেজের আওতায় চলছে। তাছাড়া আরো দুটি এমআরটি লাইন-১ এবং এমআরটি লাইন-৫ নির্মাণের লক্ষ্যে সম্ভাব্য সমীক্ষার কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি জানান, বিমানবন্দর থেকে বাড্ডা, রামপুরা হয়ে কাঞ্চন সেতু পশ্চিম পাশ পর্যন্ত প্রথম পাতাল রেল নির্মাণ করা হবে।

রোববার সকালে সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংরক্ষিত সংসদ সদস্য বেগম পিনু খানের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী জানান, মেট্রোরেল প্রকল্পের উত্তরা তৃতীয় পর্ব থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত আংশিক চালু হবে এবং ২০২০ সালে উত্তরা তৃতীয় পর্ব হতে বাংলাদেশ পর্যন্ত চালু হবে।

সংসদে মন্ত্রীর দেওয়া তথ্যানুযায়ী এমআরটি লাইন-১ নির্মাণের লক্ষ্যে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ চলমান আছে। বিস্তারিত নকশা প্রণয়নের জন্য ২০১৭ সালের ২৯ জুন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা জাইকার সাথে ঋণচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশে প্রথম পাতাল রেল নির্মিত হতে যাচ্ছে, যার রুট হবে হজরত শাহজালাল (রা.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর-খিলক্ষেত-কুড়িল-যমুনা ফিউচার পার্ক-বাড্ডা-রামপুরা-মালিবাগ-রাজারবাগ-কমলাপুর এবং কুড়িল হতে কাঞ্চন সেতুর পশ্চিম পাশ পর্যন্ত। এর মোট দৈর্ঘ্য হবে ২৬ দশমিক ৬০ কিলোমিটার।

এমআরটি লাইন-১ এর জন্য স্টেশন থাকবে ১৭টি। যেসব জায়গায় স্টেশন থাকবে— বিমানবন্দর, খিলক্ষেত, কুড়িল, নর্দা (যুমনা ফিউচার পার্ক), নতুন বাজার, বাড্ডা, হাতিরঝিল, রামপুরা, মালিবাগ, রাজারবাগ, কমলাপুর এবং কুড়িল, বসুন্ধরা, মাস্তল, পূর্বাচল পশ্চিম, পূর্বাচল সেন্টার, পূর্বাচল টার্মিনাল।

এছাড়া, এমআরটি লাইন-৫ নির্মাণের জন্যও সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ চলছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের আরও জানান, এমআরটি লাইন-৫ (উত্তরা) দৈর্ঘ্য হবে ১৯ দশমিক ৬ কিলোমিটার (এলিভেটেড ৬ কিলোমিটার ও আন্ডারগ্রাউন্ড ১৩ দশমিক ৬০ কিলোমিটার) এর রুট হবে হেমায়েতপুর-গাবতলী-টেকনিক্যাল-মিরপুর-১-মিরপুর-১০-কচুক্ষেত-বনানী-গুলশান-ভাটারা এবং গাবতলী-ধানমন্ডি-বসুন্ধরা সিটি-হাতিরঝিল-লিংকরোড পর্যন্ত। এখানে স্টেশন থাকবে ১৪টি। সেগুলো হচ্ছে— হেমায়েতপুর, বলিয়াপুর, মধুমতি, আমিনবাজার, গাবতলী, দারুস সালাম, মিরপুর-১০, মিরপুর-১৪, কচুক্ষেত, বনানী, গুলশান-২, নতুন বাজার, ভাটারা।

এছাড়া এমআরটি লাইন-৫ (দক্ষিণাংশ) রুট হবে— গাবতলী-ধানমন্ডি-পান্থপথ-হাতিরঝিল-লিংক রোড-নগরপাড়া। এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে ঢাকা শহরের যানজট অনেকাংশে কমে যাবে।

Top